লতিফ সিদ্দিকীর শূন্য আসনে উপ-নির্বাচন ২৮ অক্টোবর

সিএইচটি-অবজারভার.কম: মঙ্গলবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫ :

Electionসাবেক মন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকীর শূন্য আসন টাঙ্গাইল-৪ এ উপ-নির্বাচন হবে আগামী ২৮ অক্টোবর।

আজ মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয়ের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ উপ-নির্বাচনের এ তফসিল ঘোষণা করেন।

সিইসি জানিয়েছেন, আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময়। মনোনয়নপত্র বাছাই হবে ৩ অক্টোবর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ১১ অক্টোবর। আর ভোট গ্রহণ হবে ২৮ অক্টোবর।

সিইসি বলেন, ভোট কেন্দ্রে পর্যবেক্ষণ করতে কোনো বাধা নেই। তবে গ্রুপ বাই গ্রুপ ভোট কেন্দ্রে এবং ভোট কক্ষে যেতে হবে। কেননা, অনেক লোক এক সঙ্গেই ভোট কেন্দ্রে প্রবেশ করলে নির্বাচন বিঘ্নিত হয়।

স্মার্ট কার্ডের বিষয়ে কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ বলেন, এতে ডুপ্লিকেট করার কোনো সুযোগ থাকবে না। এতে ২৫টি নিরাপত্তা ব্যবস্থা রয়েছে। বাইরে থেকে কার্ড তৈরি করে আনা হয়েছে। সবকিছু রেডি হলে কার্ডগুলো ছাপানো শুরু হবে। এরপর এলাকা ভিত্তিক পর্যায়ক্রমে তা বিতরণ করা হবে। এখনো কবে দেওয়া হবে সে সিদ্ধান্ত হয়নি। চলতি বছরেই শুরু করা হবে।

হজ নিয়ে মন্তব্য করায় দলীয় পদ হারানোর পর লতিফ সিদ্দিকীর সংসদ সদস্য পদও বাতিলের উদ্যোগ নিতে স্পিকারকে অনুরোধ জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। সে মোতাবেক স্পিকার বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য সিইসিকে চিঠি পাঠালে শুনানির ব্যবস্থা করে ইসি। সেই শুনানিতে অংশ নিয়ে পদত্যাগের ঘোষণা দেন লতিফ সিদ্দিকী। এরপর গত ১ সেপ্টেম্বর স্পিকারের কাছে তিনি পদত্যাগপত্র জমা দেন। গত ৩ সেপ্টেম্বর তার আসনটি শূন্য ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করে সংসদ সচিবালয়।

এদিকে পদত্যাগের পর লতিফ সিদ্দিকী আর নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন।

কালিহাতী উপজেলার ১৩ ইউনিয়ন, কালিহাতী পৌরসভা এবং এলেঙ্গা পৌরসভা নিয়ে  টাঙ্গাইল-৪ আসন গঠিত। এ আসনে ভোট কেন্দ্র রয়েছে মোট ১০৭টি, মোট ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৭৭ হাজার ৮৪৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৩৬ হাজার ৩৪৭ জন, নারী ভোটার ১ লাখ ৪১ হাজার ৪৭৩ জন।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment