মাসিক সভায় বৃষ কেতু চাকমা

উদ্যোক্তারা এগিয়ে এলে রাঙ্গামাটি একটি উন্নত জেলায় পরিণত হবে

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

BKetu
রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মাসিক সভায় বৃষ কেতু চাকমা

রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেছেন, প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর রাঙ্গামাটি জেলার উন্নয়নের জন্য সরকারের পাশাপাশি সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি বলেন, এখানকার মানুষ অনেক শান্ত ও সুশৃঙ্খল। কৃষিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে এ জেলায় বিনিয়োগের সুযোগ রয়েছে। এখানে কর্মসংস্থান বাড়াতে সরকারের পাশাপাশি ব্যক্তি উদ্যোক্তারা এগিয়ে এলে রাঙ্গামাটি পরিপূর্ণভাবে একটি উন্নত জেলায় পরিণত হবে।

আজ রোববার রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত পরিষদের সেপ্টেম্বর ২০১৫ মাসিক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম জাকির হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্যাবৃন্দ, পরিষদের কর্মকর্তা ও হস্তান্তরিত বিভাগের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় স্বাস্থ্য বিভাগের সিভিল সার্জন ডা: স্নেহ কান্তি চাকমা বলেন, বর্তমানে হাসপাতাল ও সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রবেশ মুখে নতুন করে গেইট নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়া হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ড সংস্কার, ভবন মেরামত করা হয়েছে। হাসপাতালের পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা, ঔষুধ বিতরণসহ দাপ্তরিক কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক জানান, গত বর্ষায় অতিবৃষ্টির কারণে মাঠে ফসলের বেশ কিছু ক্ষতি সাধিত হয়েছে। লেকের পানি না কমা পর্যন্ত ধান রোপন সম্ভব নয়। বর্তশানে  ইউরিয়া টিএসপি সার মজুদ রয়েছে এবং জেলার চাষীদের চাহিদা অনুযায়ী বীজ বপন, বীজ রোপন সেচ পাম্প এর চাহিদা পত্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। যা সরকার হতে শতকরা ৩০ ভাগ ও চাষীদের থেকে ৭০ভাগ অর্থ প্রদানের মাধ্যমে বিতরণ করা হবে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বলেন, ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত জেলার ৪র্থ শ্রেণি বৃত্তি পরিক্ষায় উত্তীর্ণ কৃতী শিক্ষার্থীদের মাঝে গত ১৬ সেপ্টেম্বর বৃত্তি ও সনদপত্র প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া আগামী মাসে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট শুরু হবে এবং ২০১৫ সালের ৪র্থ শ্রেণী বৃত্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি গ্রহণকল্পে চেয়ারম্যান মহোদয়ের সাথে সভা করা হবে ।

মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগের কর্মকর্তা জানান, ৭ম শ্রেণী শিক্ষাবৃত্তি ও সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠান গত ১৮ সেপ্টেম্বর পার্বত্য প্রতিমন্ত্রীর উপস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের মাঝে প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া জেলার বিদ্যালয়গুলোতে মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যক্রম যথাযথভাবে চলছে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা বলেন, আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর হতে ৯ অক্টোবর ২০১৫ পর্যন্ত ইলিশ নিধন ও বিক্রির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। কোথাও বিক্রি করতে দেখলে মৎস্য অফিসকে অবহিত করার জন্য অনুরোধ জানান তিনি ।

জেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগের কর্মকর্তা বলেন, কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে জেলার প্রতিটি পশুর হাটে জেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগের কর্মকর্তারা গর্ভবতী গাভী ও রোগা গরু চিহ্নিত করে মুসল্লিদের সেবা প্রদান করছে। এছাড়া চিকিৎসা ও প্রোডাকশন কার্যক্রম ভালোভাবেই চলছে।

হাঁস মুরগী খামারের ব্যবস্থাপক বলেন, বর্তমানে খামারে প্রচুর মুরগীর বাচ্চা রয়েছে। সরকারি তালিকা ও মুরগীর বয়স অনুযায়ী ৭০ টাকা দামে বিক্রী করা হচ্ছে। তিনি আগ্রহী চাষীদের ক্রয়ের জন্য অনুরোধ জানান।
সমবায় বিভাগের জেলা সমবায় কর্মকর্তা বলেন, ১৬০ টি অডিট সম্পন্ন হয়েছে। শ্রেষ্ঠ সমবায় পুরস্কার প্রদানের জন্য উপজেলা কার্যালয়ে বার্তা প্রেরণ করা হয়েছে। তালিকা আসলে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে।

জেলা সমাজ সেবা বিভাগের কর্মকর্তা আলপনা চাকমা বলেন, ক্ষুদ্রঋণ, বয়স্ক ভাতা, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, প্রতিবন্ধী শিক্ষা ভাতা, সঠিকভাবে প্রদান করা হচ্ছে।

পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক জানান, জেলার মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের জন্য মন্ত্রণালয় হতে একটি নতুন এম্বুলেন্স প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া বিভাগীয় কার্যক্রম যথারীতি চলছে।

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক বলেন, বর্তমানে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান কার্যক্রম চলছে। আগামী ১ নভেম্বর যুব দিবস অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে সবাইকে উপস্থিত থাকারও অনুরোধ জানান তিনি।

পর্যটন হলিডে কমপ্লেক্স এর ব্যবস্থাপক বলেন, প্রবল বৃষ্টির কারণে বর্তমানে ঝুলন্ত ব্রীজটি ২ থেকে আড়াই ফুট পানির নিচে রয়েছে বিধায় পর্যটক কম হচ্ছে। আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর বিশ্ব পর্যটন দিবস। দিবসটি সফলভাবে পালনের লক্ষ্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

সভায় হস্তান্তরিত বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তাগণ তাদের বিভাগের স্ব স্ব কার্যক্রম উপস্থাপন করেন।

পরিশেষে চেয়ারম্যান বলেন, জেলার সার্বিক উন্নয়ন, সমস্যাসহ নানাদিক নিয়ে কাজ করতে হয় জেলা পরিষদকে। পরিষদের সাথে সমন্বয় রেখে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে এখানকায় বসবাসরত মানুষের কল্যাণে এগিয়ে আসতে হবে। সভায় আলোচনার বিষয়গুলো বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে পরিষদের সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস প্রদান করেন তিনি।

তারিখ  ২০/০৯/২০১৫ইং

(অরুনেন্দু ত্রিপুরা)
জনসংযোগ কর্মকর্তা
রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment