নেনসং ত্রিপুরার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সেপ্রু পাড়া এলাকায় সম্পন্ন

স্টাফ রিপোর্ট –

Cremationবান্দরবানের রুমা উপজেলা ও রাঙ্গামাটির বিলাইছড়ি উপজেলার সীমান্তবর্তী বড়থলী ইউনিয়নের সেপ্রু পাড়ায় যৌথ বাহিনী ও সন্ত্রাসীদের মধ্যকার গোলাগুলিতে নিহত ভিডিপি (গ্রাম পুলিশ) সদস্য নেনসং ত্রিপুরার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া আজ সোমবার তার নিজ বাড়ি সেপ্রু পাড়া এলাকায় সম্পন্ন করা হয়েছে।

রুমা উপজেলা চেয়ারম্যান অং থোয়াই চিং মারমা জানান, বড়থলী ইউনিয়নে যৌথবাহিনীর সাথে সন্ত্রাসীদের মধ্যে গোলাগুলিতে ওই এলাকার লোকজন আতঙ্কে রয়েছে বলে জানতে পেরেছেন।  তিনি আরও জানান, রাঙ্গামাটি জেলার ইউনিয়ন হলেও বাজার কাছে হওয়ায় ওই এলাকার লোকজন বান্দরবানের রুমা উপজেলা সদরে এসে বেচাকেনা করে থাকেন। গোলাগুলির ঘটনার পর থেকে ওই এলাকার লোকজন বাজারে আসছে না।

রুমা থানা ওসি শরিফুল ইসলাম জানান, যৌথবাহিনীর সঙ্গে সন্ত্রাসীদের গোলাগুলিতে পত্র-পত্রিকায় ভিডিপি (গ্রাম পুলিশ) সদস্য মেংপং ম্রো নিহত হওয়ার খবর ছাপা হয়েছে। আসলে ঐ ঘটনায় মেংপং ম্রো নামে কেউ মারা যায়নি। এই ঘটনায় বড়থলী ইউনিয়নের সেপ্রু পাড়ার কাত্রো ত্রিপুরার ছেলে নেনসং ত্রিপুরা নামে এক ভিডিপি সদস্য নিহত হয়েছেন বলে তিনি নিশ্চিত করেছেন।

রুমা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী চাহেল তস্তুরী জানান, গোলাগুলির ঘটনায় নিহত গ্রাম পুলিশ সদস্যের নিজ বাড়ি বড়থলী ইউনিয়নের সেপ্রু পাড়াতে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সোমবার সকাল দশটায় সম্পন্ন হয়েছে।

উল্লেখ্য, গতকাল রোববার রাঙ্গামাটি বিলাইছড়ি উপজেলার বড়থলী ইউনিয়নের সেপ্রু পাড়া এলাকায় যৌথবাহিনীর সঙ্গে সন্ত্রাসীদের ব্যাপক গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। এতে সন্ত্রাসীদের অতর্কিত আক্রমনে এক ভিডিপি সদস্য নিহত হয়। আহত হয়েছে সেনা সদস্য কাশেম ও আনসার সদস্য হান্নান। ৩ অক্টোবর  সেপ্রু পাড়ার নতুন পুকুর এলাকায় ঢাকার দুই পর্যটন আবদুল্লা আল জোবায়ের ও জাকির হোসেন মুন্না সেখানে বেড়াতে গিয়ে অপহৃত হন। অপহরণের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর তাদেরকে উদ্ধারে সীমান্ত এলাকায় যৌথ বাহিনী কতৃক সাঁড়াশি অভিযান চলছে।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment