রাঙ্গামাটিতে আওয়ামী যুবলীগের ৪৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –

Juba

আওয়ামী যুবলীগের ৪৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে রাঙ্গামাটি জেলা যুবলীগ শহরে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করে। আজ রোরবার বিকালে র‌্যালি রাঙ্গামাটি তবলছড়ি এলাকার পাবলিক কলেজ প্রাঙ্গণ থেকে শুরু হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে দলীয় কার্যালয়ে এসে শেষ হয়। র‌্যালি শেষে এ উপলক্ষে পৌর ট্রাক টার্মিনালের সামনে এক আলোচনা সভা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

আলোচনা সভায় আওয়ামী লীগ নেতারা বলেন, সামনে পৌর নির্বাচন। এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে একটি মহল ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে যাতে নির্বাচন প্রক্রিয়া বন্ধ রাখা যায়।

বক্তারা বলেন, বর্তমান সরকার প্রত্যেক প্রথম শ্রেণীর পৌরসভার জন্য ৮০ লক্ষ টাকা উন্নয়নের জন্য বরাদ্দ প্রদান করেন। কিন্তু রাঙ্গামাটির পৌর মেয়র সাইফুল ইসলাম ভুট্টো বারবার বলে বেড়ায় সরকারের পক্ষ থেকে কোন সাহায্য আসে না। তিনি একজন মিথ্যাবাদী, ভণ্ড, প্রতারক বলে আওয়ামী লীগ নেতারা অভিযোগ করেন।

জেলা যুব লীগের সভাপতি আকবর হোসেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি চিংকিউ রোয়াজা ও রুহুল আমীন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য হাজী মুছা মাতব্বর, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, সাংগঠনিক সম্পাদক জমির উদ্দীন, জেলা পরিষদের সদস্য অমিত চাকমা রাজু, স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা, জেবুন্নেসা রহিম-সহ দলের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

সভায় বক্তরা বলেন, গত ৯ নভেম্বর মেয়র ভুট্টো সাংবাদিক সম্মেলন করে মিথ্যা, বানোয়াট ভিত্তিহীন কথা বলে জনমনে বিভ্রান্তি ছড়ানোর অপকৌশলের আশ্রয় গ্রহণ করেছেন। কিন্তু তার এ নীল-নক্সার পরিকল্পনা সাধারণ জনগণকে নিয়ে রুখে দেওয়া বলে আওয়ামী লীগের নেতারা হুশিয়ারি প্রদান করেন। এসময় বক্তারা রাঙ্গামাটিতে মেয়র ভুট্টোকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করেন।

বক্তারা আরো বলেন, আওয়ামী লীগ একটি আবেগের নাম, যে সংগঠন জন মানুষের এবং দেশের কথা বলে। আজ জননেত্রী শেখ হাসিনা যে রূপকল্প ঘোষণা করেছেন তা বাস্তবায়নের জন্য সকলে মিলে একান্ত প্রচেষ্টা চালাতে হবে। বাংলাদেশ অনেক শোষণ-বঞ্চণা এবং ত্রিশ লক্ষ শহীদের বিনিময়ে স্বাধীন হয়েছে। তাই এ দেশের উন্নয়ন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার রূপকল্প প্রতিষ্ঠার জন্য সামনের দিনগুলোতে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

আলোচনা শেষে জেলা যুবলীগের পক্ষ থেকে মনোজ্ঞ এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হয়। রাঙ্গামাটির অসংখ্য নারী-পুরুষ, যুবক-যুবতী ও কিশোর-কিশোরী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment