‘পদ্মাসেতু নিয়ে দুর্নীতির যে অভিযোগ উঠেছিল সেটি ছিল ষড়যন্ত্রেরই অংশ’

অনলাইন ডেস্ক –

????????????????????????????????????

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পদ্মাসেতু নিয়ে দুর্নীতির যে অভিযোগ উঠেছিল সেটি ছিল ষড়যন্ত্রেরই একটি অংশ। দেশি-বিদেশি কোনো ষড়যন্ত্রই পদ্মা সেতুর কাজ বন্ধ করতে পারেনি। এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাংক ষড়যন্ত্রের বিষয়টি প্রমাণ করতে পারেনি।
শেখ হাসিনা বলেছেন, আমরা সেই জাতি, যে জাতি সম্পর্কে জাতির পিতা বলেছিলেন, ‘কেউ দাবায়া রাখতে পারবা না’, আজকে সেটি প্রমাণিত হয়েছে। আজ শনিবার সকালে শরীয়তপুরের সেতুর জাজিরা পয়েন্টে নদী শাসন কাজের উদ্বোধন শেষে এক সুধী সমাবেশে তিনি এই কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, দুর্নীতির অভিযোগ তুলে পদ্মাসেতুর অর্থায়নে বিশ্বব্যাংক আমাদের নানা শর্ত জুড়ে দিয়েছিল। আমি এটি চ্যালেঞ্জ করি।
তিনি বলেন, বড় কাজ করতে গেলে হাত পাততে হবে এই মানসিকতা ভাঙতেই নিজস্ব অর্থায়নে দেশের সবচেয়ে বড় এই অবকাঠামো প্রকল্প বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।
আমি চেয়েছিলাম, আমরা পারি, আমরা তা দেখাব। বাংলাদেশের মানুষের কাছ থেকে আমি অনেক বেশি সাড়া পেয়েছি। আজ আমরা সেই দিনটিতে এসে পৌঁছেছি।
শেখ হাসিনা বলেন, এ প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে একদিকে দক্ষিণাঞ্চলের অবহেলিত মানুষের জীবনমানের উন্নতি হবে, অন্যদিকে প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে আঞ্চলিক যোগাযোগ বৃদ্ধি পাবে।
সুধী সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, শিল্প মন্ত্রী আমির হোসেন আমু, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, নৌ পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা মশিউর রহমান ও ইকবাল সোবহান চৌধুরী, সেনা প্রধান আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক এবং সাবেক যোগাযোগ মন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন।

‘বিশ্বব্যাংক দুর্নীতির কথা বললেও প্রমাণ করতে পারেনি’

 

PM

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পদ্মাসেতু নিয়ে বিশ্বব্যাংক দুর্নীতির কথা বললেও প্রমাণ করতে পারেনি। শনিবার বিকালে মুন্সীগঞ্জের মাওয়ার নতুন গোলচত্বর এলাকায় এক জনসভায় ভাষণকালে তিনি এই কথা বলেন।
শেখ হাসিনা বলেন, পদ্মা সেতু অর্থায়নের বিষয়ে বিশ্বব্যাংক দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছে। কিন্তু তারা কোনো রকম দুর্নীতির প্রমাণ দেখাতে পারেনি।
তিনি বলেন, আমরা পদ্মা সেতু প্রকল্পের উদ্যোগ প্রথম গ্রহণ করি। কিন্তু বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় এসে এই কাজ বন্ধ করে দেয়। বিএনপি-জামায়াত দেশের উন্নয়ন চায় না। মানুষের কল্যাণ তারা করে না, করতেও চায় না। বাংলাদেশকে তারা উন্নত করতে চায় না।
শেখ হাসিনা বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া যুদ্ধাপরাধীদের এ দেশের ক্ষমতায় বসিয়েছিলেন। যুদ্ধাপরাধীদের দল শুধু ধ্বংস করতে জানে।  জামায়াত ধর্মের নামে কুরআন শরীফ পুড়িয়েছে। আন্দোলনের নামে মানুষকে পুড়িয়ে মেরেছে। যারা বেঁচে আছে তারা মানবেতর জীবন-যাপন করছে। যারা মানুষকে পুড়িয়ে মেরেছে, ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে তাদের বিচার বাংলাদেশের মাটিতে বিচার হবেই।
তিনি বলেন, আমরা খাদ্যে স্বনির্ভরতা অর্জন করেছি। এখন আর খাদ্যের জন্য কারো কাছে হাত পাততে হয় না। আপনাদের ছেলে-মেয়েরা পড়াশুনা করছে, সেই বই আমরা বিনামূল্যে দিয়েছি। আমরা চাই মানুষ ভাল থাকবে, বাসস্থান পাবে। কোনো শিশু স্কুলের বাইরে থাকবে না।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment