রাঙ্গামাটিতে জাতীয় সমাজসেবা দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –

Rally

“সমাজ সেবার প্রচেষ্টা এগিয়ে যাবে দেশটা” এই স্লোগানকে সামনে রেখে রাঙ্গামাটিতে জাতীয় সমাজ সেবা দিবস উপলক্ষে র‌্যালি, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়েছে।

জাতীয় সমাজ সেবা দিবস উপলক্ষে আজ ২ জানুয়ারি শনিবার সকালে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসকের কার্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে এক র‌্যালি বের হয়। র‌্যালি শহরের মূল সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হয়। এরপর শিল্পকলা একাডেমি সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, শিশু সদনের শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণ, দুঃস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র ও দু’টি সামাজিক সংগঠনের মাঝে চেক বিতরণ করা হয়।

সমাজ কল্যাণ বিভাগের আহ্বায়ক ও রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে রাঙ্গামাটি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো: মোস্তফা জামান, বিশেষ অতিথি হিসেবে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ প্রাক্তন সদস্য ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক মনিরুজ্জামান মহসিন রানা, জেলা সমাজ সেবার প্রাক্তন উপ-পরিচালক বিজন মনি চাকমা, প্রতিবন্ধী স্কুল ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক নূরুল অাবছার ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক কালায়ন চাকমা বক্তব্য দেন। স্বাগত বক্তব্য দেন জেলা সমাজ সেবার উপ-পরিচালক আল্পনা চাকমা।

আলোচনা সভায় বক্তরা বলেন, সমাজের পিছিয়ে পরা অবহেলিত জনগোষ্ঠীর জন্য সমাজ সেবা অধিদপ্তর যেভাবে কাজ করছে সেভাবে সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে। এই অবহেলিত মানুষদের জন্য নিজেদের মধ্যে সেবার মনোভাব সৃষ্টি করতে হবে।

তারা বলেন, আমাদের সমাজে পিতা-মাতা বয়স্ক হলেই তাদের অবহেলা করা হয়। সঠিকভাবে তাদের লালন পালন না করে অবহেলা করা হয় তাদের প্রতি। এ বিষয়গুলো নিয়ে আমাদের গভীরভাবে চিন্তা করা প্রয়োজন। বক্তারা বলেন, নতুন প্রজন্মের মাঝে মানবতাবোধ জাগ্রত করতে হবে। সেবার মনোভাব নিয়ে তাদের তৈরি করতে হবে। দেশের প্রতিটি মানুষ যদি দিনে অন্ততঃ একটি করে ভালো কাজ করে তাহলে দিনে ১৬ কোটি ভালো কাজ হবে সমাজ তথা দেশের জন্য। সমাজের বিত্তবানদের শুধু টাকার পিছনে দৌড়ালে হবেনা, সমাজ উন্নয়নমূলক কাজও করতে হবে। সমাজের এই অবহেলিত মানুষদের সক্ষমতা বৃদ্ধি করতে হবে। সমাজ সেবার ব্যাপকতা আরো বৃদ্ধি করতে পারলে সমাজের উন্নয়ন ঘটবে।

বক্তারা আরো বলেন, সমাজের কোন একটি অংশকে বাদ দিয়ে দেশ উন্নয়ন করা সম্ভব নয়। সমাজের সকল স্তরের জনগোষ্ঠীকে উন্নয়নমূলক কাজে সম্পৃক্ত করে আলোকিত বাংলাদেশ বিনির্মাণ করতে হবে।

এরপর অতিথিবৃন্দ শিশু সদনের শিক্ষার্থীদের মাঝে বই, দুঃস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বন্টণ ও দুইটি সামাজিক সংগঠনের কাছে চেক বিতরণ করেন। পরে স্থানীয় শিল্পীদের পরিবেশনায় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।

এর আগে অতিথিবৃন্দ শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে সমাজ সেবা মেলার উদ্বোধন করেন এবং বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment