বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৬৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আজ

ডেস্ক রিপোর্ট –

BCL

‘শিক্ষা-শান্তি-প্রগতি’র স্লোগান নিয়ে ৬৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। বাংলা ও বাঙালির স্বাধীনতা ও স্বাধিকার অর্জনের লক্ষ্যে ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি প্রতিষ্ঠা হয় ছাত্রলীগের। তৎকালীন তরুণ নেতা শেখ মুজিবের প্রেরণা ও পৃষ্ঠপোষকতায় এক ঝাঁক সূর্য বিজয়ী তারুণ্যের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত হয় সংগঠনটি।
আজ সোমবার দিবসটি উপলক্ষে পাঁচ দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে সংগঠনটি। সকাল সাড়ে ৬টায় ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনের মাধ্যমে কর্মসূচি শুরু হবে। সকাল ৮টা ১ মিনিটে কার্জন হলে কেক কাটার কর্মসূচি রয়েছে। সকাল ১০টায় অপরাজেয় বাংলার পাদদেশ থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হবে। র‌্যালিটি শাহবাগ, মৎস্য ভবন, কাকরাইল ও বিজয় নগর মোড় হয়ে ২৩, বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে গিয়ে শেষ হওয়ার কথা। এছাড়া প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ৫ জানুয়ারি সকাল ১০টায় কলা ভবনের সম্মুখে বটতলায় স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি, ৬ জানুয়ারি বিকাল ৫টায় টিএসসি’র সড়ক দ্বীপ সংলগ্ন ডাসে দুস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ, ৭ জানুয়ারি বেলা ১১টায় টিএসসি মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী বিতরণ ও পাঠচক্র উদ্বোধন, ৮ জানুয়ারি বিকাল ৩টায় টিএসসির সড়ক দ্বীপ সংলগ্ন ডাসে ‘ইতিহাস ও মুক্তিযুদ্ধ’ শীর্ষক বিশেষ আলোকচিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে।
প্রতিষ্ঠার পর থেকেই বিভিন্ন গণতান্ত্রিক ও প্রগতিশীল সংগ্রামে ছাত্রলীগ সামনে থেকে অংশ নিয়েছে সংগঠনটি। ৫২’র ভাষা আন্দোলন, ৫৪’র সাধারণ নির্বাচন, ৫৮’র আইয়ুববিরোধী আন্দোলন, ৬২’র শিক্ষা আন্দোলনে ছাত্রলীগ গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা পালন করে। ৬৬’র ৬ দফা এবং ৬৯’র গণঅভ্যুত্থানে ছাত্রলীগ ঐতিহাসিক ভূমিকা পালন করে। ৭০’র নির্বাচন এবং ৭১’র মহান মুক্তিযুদ্ধেও সংগঠনটির ছিল সক্রিয় অংশগ্রহণ। যদিও গত দুই দশক ধরে অভ্যন্তরীণ কোন্দল ও বিভিন্ন বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের জন্য নানা সময়ে গণমাধ্যমের শিরোনাম হতে হয়েছে সংগঠনটিকে। আগামী দিনের সব বিতর্ক ছাপিয়ে অতীত ঐতিহ্যে ফিরে যেতে পারবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বর্তমান নেতৃত্ব।
৬৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন উপলক্ষে রাঙ্গামাটি জেলা ছাত্রলীগও ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। এ উপলক্ষে ভোর ৬টায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে রাঙ্গামাটি ছাত্রলীগ। বিকাল ৩টায় জেলা পরিষদ প্রাঙ্গন থেকে আনন্দ র‍্যালি শুরু করে পৌরসভা প্রাঙ্গনে বিশাল সমাবেশ করবে। সেখানে এ উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল জব্বার সুজনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিতব্য আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি থাকবেন রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার।
৬৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন সবাইকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। ৬৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে ছাত্রলীগের কর্মপরিকল্পনা নিয়ে সংগঠনটির সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ মেধাবীদের সংগঠন। জাতির পিতার আদর্শ ধারণ করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন বাস্তবায়নে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। অতীত আদর্শকে সমুন্নত রাখতে সব ধরনের প্রচেষ্টা আমাদের থাকবে। পাশাপাশি মেধাবীদের সংগঠনে আরও বেশি সম্পৃক্ত করতে কাজ করব। সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসাইন বলেন, ছাত্রলীগ জাতির জনকের হাতে গড়া সংগঠন। আগামী বাংলাদেশের নেতৃত্ব দেবে ছাত্রলীগ। সেই নেতৃত্বের মাধ্যমে সোনার বাংলাদেশ যাতে গড়া যায় সেটাই হবে এবারের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর মিশন এবং ভিশন।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment