টেলিভিশন এখন ভাঁজ করে বা গোল পাকিয়েও রাখা যাবে

অনলাইন ডেস্ক –

Tel

টেলিভিশন দেখা শেষ – ব্যস, সেটা ভাঁজ করে বা গোল পাকিয়ে রেখে দিলেন এক পাশে। শুনতে কল্পকাহিনী মনে হলেও বাস্তবে এই প্রযুক্তি এখন নাগালের মধ্যেই। এরকম এক টেলিভিশন ইতিমধ্যে পরীক্ষামূলকভাবে তৈরি করেছে এলজি এবং এটি তারা প্রদর্শন করছে লাস ভোগ কনজুমার ইলেকট্রনিক্সের বিশ্ব প্রদর্শনীতে। বহুদিন ধরে এলজি এরকম একটি টেলিভিশন উদ্ভাবনের জন্য কাজ করছিল। তাদের তৈরি এই টেলিভিশনের ডিসপ্লে হাই-ডেফিনিশন (এইচডি) মানের।
বিবিসির প্রযুক্তি বিষয়ক সংবাদাদাতা ডেভ লিকে এই নতুন টেলিভিশনটি পরীক্ষা করে দেখার সুযোগ দিয়েছিল এলজি।
তিনি জানাচ্ছেন, টেলিভিশনটি কার্যত একটি স্ক্রীনের মতো, যা কাগজের মতো গোল পাকিয়ে রাখা যায়।
এলজির তৈরি পরীক্ষামূলক টেলিভিশনটির স্ক্রীন সাইজ হচ্ছে ১৮ ইঞ্চি। কিন্তু তারা এখন ৫৫ ইঞ্চি সাইজের এরকম টেলিভিশন তৈরির পরিকল্পনা করছে। এই স্ক্রীন হবে ফোর-কে মানের, অর্থাৎ এইচডি-র চেয়েও চারগুণ উন্নত। কিভাবে এটা সম্ভব হচ্ছে? এলজি কিন্তু তাদের এই প্রযুক্তির রহস্য এখনও ফাঁস করেনি। তবে যেটা জানা যাচ্ছে তারা এখন এলইডির পরিবর্তে ওএলইডি প্রযুক্তিতে চলে যাচ্ছে। ওএলইডি বলতে অর্গানিক এলইডি। এই টেলিভিশনে ব্যাকপ্যানেলের কোন প্রয়োজন হবে না, সে কারণেই স্ক্রীনটিকে বাঁকানো যাবে।
কিন্তু বাঁকানো যায় এমন টেলিভিশনের দরকারইবা কি?
এলজি বলছে, ইচ্ছেমাফিক ডিসপ্লে তৈরিতে খুব কাজে লাগবে এই টেলিভিশন স্ক্রীন, যেমন দোকান-পাটে। এছাড়া যারা ঘরের একটি কোনা টেলিভিশনের জন্য বরাদ্দ রাখতে চাননা, তাদের জন্য এই টেলিভিশন খুব কাজে আসবে। টেলিভিশন দেখা শেষ, গোল পাকিয়ে স্ক্রীনটা তুলে কোথাও রেখে দিলেই ঝামেলা শেষ। পরে আবার ইচ্ছেমত দেখা যাবে।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment