রাঙ্গামাটির লংগদুতে ছাত্রলীগের ৬৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

লংগদু রিপোর্ট –

DT

ছাত্রলীগের ৬৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আজ লংগদু উপজেলা ছাত্রলীগের আয়োজনে র‍্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রাক্তন প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার বলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী ছাত্র সংগঠন টেন্ডারবাজি, দখলদারি করতে পারে না, ছাত্রলীগ মেধাবী ছাত্রদের সংগঠন। আমার রাজনীতিও ছাত্রলীগ দিয়ে শুরু। এরপর আমি এমপি হয়েছি, মন্ত্রী হয়েছি। আজকের ছাত্রলীগের মেধাবী নেতা-কর্মীরাই ভবিষ্যতে দেশকে নেতৃত্ব দেবে।

তিনি আরো বলেন, আমরা যখন ছাত্রলীগ করতাম তখনও পার্বত্য অঞ্চলে জাতীয় রাজনীতির প্রভাব পড়েনি। পাহাড়ি শিক্ষার্থী ছাত্রলীগ করার কারণে অনেক নির্যাতনের শিকার হয়েছে। বর্তমানেও জেএসএসের কারণে পাহাড়ি ছাত্ররা ছাত্রলীগ করতে পারছে না। পাহাড়িরা জাতীয় রাজনীতি করতে চাইলে তাদের হত্যা ও গুম করার হুমকি দেয়। তারপরও পাহাড়ে বসবাসকারী সব মানুষের জন্যই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত আছে। শত বাধা বিপত্তি পেরিয়ে মেডিকেল কলেজ ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় কার্যক্রম শুরু করেছে। অথচ একটি বিশেষ মহল এ অঞ্চলের উন্নয়নের ধারাকে ব্যাহত করতে চাইছে।

তিনি  বলেন, নিজেদের টাকায় পদ্মাসেতু হবে এটা কোনদিন এদেশের মানুষ কল্পনাই করতে পারেনি। জননেত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশ আজ বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। অর্থনৈতিকভাবে বেশ এগিয়েছে বাংলাদেশ, এমনকি তথ্য-প্রযুক্তি, যোগাযোগসহ বিভিন্ন খাতে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জন করেছে দেশ।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ লংগদু উপজেলা শাখার সভাপতি জিয়াউল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজি মুছা মাতব্বর, সাংগঠনিক সম্পাদক জ্যোতির্ময় চাকমা ক্যারল, প্রচার সম্পাদক মমতাজ উদ্দীন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল বারেক সরকার, সাধারণ সম্পাদক জানে আলম।

ছাত্রলীগ নেতা রাকিব হাসানের সঞ্চালনায় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মীর সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী ঝান্টু, জেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নজরুল ইসলাম, জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রুবেল চৌধুরী, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক মো: হানিফ রেজা, রাবেতা কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাম্মদ হৃদয়।

আলোচনা সভার পূর্বে সকাল দশটায় উপজেলা ছাত্রলীগের এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা উপজেলার প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে গিয়ে শেষ হয়। এরপর অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি দীপংকর তালুকদার কেক কেটে ৬৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন। বিকেলে পরিবেশিত হয় মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment