বাঘাইছড়ির সাজেকে আবার সড়ক দুর্ঘটনা : নিহত-১, আহত-১৩

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –

Jeep

রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক থেকে ফেরার পথে আবারও একটি পর্যটকবাহী গাড়ি দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ১ জন নিহত এবং ১৩ জন গুরুতর আহত হয়েছে। নিহত আপ্রু মারমা (২৩) ছিলেন পর্যটকবাহী গাড়িটির চালক। হতাহতরা সবাই খাগড়াছড়ির বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

সাজেকের মাচালংয়ের চম্পাতলী নামক এলাকায় আজ শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকাল প্রায় ৫টার দিকে পর্যটকবাহী গাড়িটি দুর্ঘটনার শিকার হয়। খবর পেয়ে সেনাবাহিনী দ্রুত হতাহতদের উদ্ধার করে। আহতদের জরুরি ভিত্তিতে চিকিৎসার জন্য খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, সাজেক থেকে ফেরার পথে মাচালংয়ের চম্পাতলী নামক এলাকায় ঢালু রাস্তা দিয়ে নামার সময় চালক গাড়ির ব্রেক ফেল করে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে জিপ গাড়িটি রাস্তার পাশের উঁচু পাহাড়ের গায়ে আঘাত করে উল্টে যায়। এতে চালক আপ্রু মারমা গাড়ির নিচে চাপা পড়ে মারা যায়। এসময় গাড়িতে থাকা ১৩ জন পর্যটকের সবাই গুরুতর আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

দুর্ঘটনার শিকার গাড়িটির নম্বর ‘রাঙ্গামাটি ব-১৫৮১’, চালক আপ্রু মারমা খাগড়াছড়ির মহালছড়ি উপজেলার হেডম্যান পাড়ার অনিশি মারমার ছেলে। গতকাল শুক্রবার বিকাল প্রায় ৫টার দিকে পর্যটকবাহী গাড়িটি দুর্ঘটনার শিকার হয় বলে জানা গেছে। আহতদের মধ্যে ৭ জন বাঙালি এবং অপর ৬ জন পাহাড়ি, এদের সবাই খাগড়াছড়ি থেকে সকালে সাজেক ভ্রমণের উদ্দেশ্যে গিয়েছিলেন। ফেরার পথে এই দুর্ঘটনার শিকার হন তারা।

এই নিয়ে পর পর দ্বিতীয় দিনের মতো দুর্ঘটনার শিকার হলো সাজেকের পর্যটকবাহী গাড়ি। গতকাল সাজেকের শিজকছড়া পানির পয়েন্ট নামক স্থানে এক পর্যটকবাহী মাইক্রোবাসের ধাক্কায় স্থানীয় ১ শিশু নিহত হয়েছে। এ সময় মাইক্রোবাসটি রাস্তা থেকে ৪০ ফুট নিচে খাদে পড়ে গেলে নিহত শিশুটির ছোট বোনসহ ১১ জন মারাত্মক আহত হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। নিহত শিশুর নাম ছায়া রাণী চাকমা (৮)।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment