২৪ মার্চ গণসমাবেশ সফল করতে তবলছড়ি ও রিজার্ভ বাজারে পথসভা

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –

DT

পাহাড়ের একটি মহল অস্ত্রের জোরে মানুষকে জিম্মি করে রেখেছে বলে দাবী করেছেন সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার। তিনি বলেন, যতদিন পর্যন্ত পাহাড়ের অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও চাদাঁবাজি বন্ধ হবে না ততদিন পাহাড়ে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হবে না। পাহাড়ের অবৈধ অস্ত্র ও চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলনে নামতে তিনি পার্বত্যবাসীর প্রতি আহবান জানান।

মঙ্গলবার (২২ মার্চ) রাঙ্গামাটির সচেতন পার্বত্য জনগণ কর্তৃক শহরের তবলছড়ি এলাকায় আয়োজিত পথসভায় তিনি এ কথা বলেন।

রাঙ্গামাটি জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো: শামসুল আলমের সঞ্চানলায় উক্ত পথসভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য মাহবুুবুর রহমান মাহবুুব, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য মো: মুছা মাতব্বর, সাবেক পৌর মেয়র ও রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগ নেতা হাবিবুর রহমান হাবিব, রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক মমতাজুল হক, রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক রফিকুল মাওলা, রাঙ্গামাটি পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি সোলায়মান চৌধুরী, রাঙ্গামাটি পৌর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো: নাছির উদ্দীন নাছির, রাঙ্গামাটি পৌর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মনসুর আলী সহ জেলা যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীসহ অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্হিত ছিলেন।

অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারসহ খুন, অপহরণ, গুম, চাদাঁবাজি  ও নৈরাজ্যর বিরুদ্ধে আগামী ২৪ মার্চ ২০১৬ সচেতন পার্বত্য জনগণ রাঙ্গামাটি কর্তৃক আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ সফল করার লক্ষ্যে পথসভা করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও তার সহযোগী সংগঠনগুলি। মঙ্গলবার সন্ধায় শহরের তবলছড়ি এলাকায় এই পথসভা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি দীপংকর তালুকদার বলেন, পাহাড়ে যারা অবৈধ অস্ত্রধারী, চাঁদাবাজি করে সাধারণ মানুষদের যারা অস্ত্রের জোরে জিম্মি করে রাখে তাদের কোন ধর্ম নাই। তিনি বলেন, সাধারণ জনগণ পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্রধারীদের দ্বারা নির্যাতিত ও ভোগান্তির শিকার। শুধু আওয়ামী লীগ নয়, এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে সাধারণ জনগণকেও এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে ২৪ তারিখের জনসমাবেশে যোগ দিতে হবে।

পথসভায় তিনি আরো বলেন, পাহাড়ের অবৈধ অস্ত্রধারী ও চাদাঁবাজদের অবিলম্বে গ্রেফতার করতে হবে। এদেরকে সামাজিকভাবেও বয়কট করতে হবে। শুধু একদিন আমাদের জনসমাবেশের কর্মসূচি করলে হবে না। যতদিন পর্যন্ত পাহাড়ের অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও চাদাঁবাজি বন্ধ হবে না, ততদিন পর্যন্ত সবাইকে এক হয়ে পাহাড়ের এই সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আমাদের আন্দোলন চলতে থাকবে। এই পার্বত্য চট্রগ্রামের শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে পার্বত্য চট্রগ্রামের জনমানুষের স্বার্থে অবিলম্বে অবৈধ অস্ত্রধারীদের গ্রেফতারের দাবি জানান তিনি।

DT

এদিকে রিজার্ভ বাজার চৌমুহনী এলাকায় আয়োজিত পথসভায় দীপংকর তালুকদার অভিযোগ করেন, পাহাড়ে প্রতিটি স্কুলের শিক্ষকদেরকেও অবৈধ অস্ত্রধারীদের চাঁদা দিতে হয় বলে মন্তব্য করে দীপংকর তালুকদার বলেন, পাহাড়ের কোন মানুষ আজ নিরাপদ নয়। যারা শিক্ষা কাজে নিজেদের শ্রম দিয়ে তাদের ছেলে মেয়েদের শিক্ষিত করে তুলছে, তাদের কাছ থেকেও চাঁদা আদায় করে পার্বত্য অঞ্চলে ভারী ভারী অস্ত্রের মজুদ করছে। পাহাড়ের এই সকল অস্ত্রধারীদের বিরুদ্ধে পার্বত্য অঞ্চলের সকল মানুষকে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন দীপংকর তালুকদার।

রিজার্ভ বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সহ-সভাপতি মো: হারুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পথ সভায় বক্তব্য রাখেন, জেলা পরিষদ সদস্য ও আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মো: মুছা মাতব্বর, মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি উদয়ন বড়ুয়া, রাঙ্গামাটি একতা শ্রমিক কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো: সিরাজুল মোস্তফা, রাঙ্গামাটি লঞ্চ মালিক সমিতির নেতা মঈন উদ্দিন সেলিমসহ রিজার্ভ বাজার ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন সামাজিক প্রতিষ্ঠানের নেতবৃৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

দীপংকর তালুকদার বলেন, পাহাড়রে মানুষ আজ অসহায় অবস্থায় বসবাস করছে। পাহাড়ের স্থানীয় রাজনৈতিক দলগুলোর অস্ত্রের মহড়ায় তারা ঘুমাতে পারছে না। তিনি বলেন, তারা প্রতিটি সেক্টর থেকে চাঁদা আদায় করছে। তিনি অভিযোগ করে বলেন, কেউ যদি স্বেচ্ছায় কাউকে চাঁদা দিয়ে থাকে তাহলে আমাদের বলার কিছুই নেই। সন্ত্রাসীরা ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, স্কুল, সামাজিক প্রতিষ্ঠান, হাট বাজারের উন্নয়ন ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করতে যাওয়া ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ৩ ভাগে চাঁদা আদায় করছে। কেউ চাঁদা দিলেতো বেচে গেছে, আর যদি চাঁদা না দেয় তাহলে অবৈধ অস্ত্রের মাধ্যমে তাদের জিম্মি করে তাদের কাছ থেকে মোটা অংকের চাঁদা আদায় করা হচ্ছে। এই সকল চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment