ভুয়া সেনা কর্মকর্তার ৩ দিন রিমান্ড, ৩ জনকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –

Fake

১০ মার্চ বরকলে বিজিবির হাতে আটক ভুয়া সেনা কর্মকর্তা বিভাস দেওয়ানকে আরো তিন দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। এছাড়া ভুয়া সেনার সাথে আটক ১৫ জনের মধ্যে শান্তপ্রিয় স্থবির, ছন্দসেন চাকমা এবং মুক্তবীর চাকমাকে দুইদিন করে জেল গেটে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দিয়ে রাঙ্গামাটি সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত।

বুধবার (২৩ মার্চ)  সকালে রাঙ্গামাটি সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রোকন উদ্দন কবিরের আদালতে যৌথ বাহিনীর জিজ্ঞাসাবাদ করার প্রয়োজনীয়তা দেখিয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বরকল থানার এসআই সালাউদ্দিন সেলিম ৪ জনকে ১৫দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত এই আদেশ দেন।

গত মঙ্গলবার আদালতে পুলিশ ৪ জনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত ২৩ বুধবার রিমান্ড শুনানির দিন ধার্য করেন।

আসামী পক্ষের আইনজীবী রাজীব চাকমা বলেন, শুনানিতে আসামীরা কেউ উপস্থিত ছিলেন না। তিনি বলেন, আইন অনুযায়ী রিমান্ড শুনানিতে আসামীদের উপস্থিত থাকার কথা কিন্তু সেটি হয়নি। তাছাড়া একবার রিমান্ড আবেদন নামঞ্জুর হলে দ্বিতীয় বার রিমান্ডে নেওয়ার সুযোগ নেই। কিন্তু এই ক্ষেত্রে সেটা মানা হয়নি।

উল্লেখ্য, গত ১০ মার্চ রাঙ্গামাটি রাজবন বিহারের তিন বৌদ্ধ ভিক্ষুসহ ১২ জনের একটি দল নিয়ে বিভাস দেওয়ান নামে এক ব্যক্তিসহ বৃহস্পতিবার রাঙ্গামাটির বরকলে ফালিতাঙ্যা পাহাড়ে ঘুরতে যায়। ফালিতাঙ্যা পাহাড়ে অবস্থিত বিজিবি ক্যাম্পে গিয়ে নিজেকে সেনাবাহিনীর লেফট্যানেন্ট পরিচয় দেয় বিভাস দেওয়ান। পরে তার কথাবার্তায় সন্দেহ হয়ে বরকলের বিজিবিকে খবর দেয়া হয়। ফালিতাঙ্যা থেকে ফেরার পথে বরকল সদরে তাদের আটক করে বিজিবি। আটক বিভাস দেওয়ানের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে চট্টগ্রামের বায়েজিদ থেকে আরো ৪ জনকে আটক করা হয়।

আটকদের বিরুদ্ধে বরকল থানায় ১৯২৩ সালের সরকারি গোপনীয়তা আইন ও ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইন অনুযায়ী একটি মামলা হয়েছে। গত ১৩ মার্চ আটক ১৬ জনকে পুলিশ রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করলে ভুয়া সেনা কর্মকর্তা বিভাস দেওয়ানকে দুদিন এবং চট্টগ্রাম থেকে আটক ৪ জনকে ১ দিন করে রিমান্ডে এবং বাকীদের রিমান্ড নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠায় আদালত।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment