জুরাছড়িতে ইউপি চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন এক নারী প্রার্থী

জুরাছড়ি রিপোর্ট –

Mita

রাঙ্গামাটির জুরাছড়ি উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে একমাত্র নারী চেয়ারম্যান প্রার্থী মিতা চাকমা। তিনি জুরাছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়াম্যান পদে দু’জন পুরুষ প্রার্থী (স্বতন্ত্র) ক্যানন চাকমা ও (স্বতন্ত্র) জাপানী বিজয় দেওয়ানের সঙ্গে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

চেয়ারম্যান প্রার্থী মিতা চাকমা জানান, ২০০০ সালে তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম মহিলা সমিতিতে যোগদান করেন। দীর্ঘকাল পাহাড়ের অধিকার হারা নারীদের অধিকার অর্জনে কাজ করেন। ২০০৩ সালে জুরাছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত ১,২ ও ৩ নং নারী আসনে সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। তখন দেখেছেন নারী সদস্য ও এলাকার নারীরা প্রতিটি স্তরে অবহেলিত ও বঞ্চিত। তখন থেকে তাঁর মনে স্বপ্ন বেঁধে নেয় চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার। নির্বাচিত হলে ইউনিয়ন পরিষদে নারী বান্ধব প্রকল্পের মাধ্যমে নারীদের আত্ম-কর্মসংস্থান সৃষ্টি, পারিবারিক নারী কল্যাণমূলক কাজ সম্পাদন, পানীয় জলের সুব্যবস্থাসহ এলাকায় সড়ক ও বিদ্যুৎ সম্প্রসারণে কাজ করবেন বলে জানান। তিনি ২০০৫ সালে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন। বর্তমানে উপজেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক এবং উপজেলা মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক।

জুরাছড়ি উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা স্মৃতিময় চাকমা জানান, জুরাছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের ৫ হাজার ৭১১ ভোটারের মধ্যে ২ হাজার ৭৮৬ জন নারী ভোটার আছেন। এছাড়া ৪টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে ১২ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে একমাত্র নারী চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হলেন মিতা চাকমা।

১৩৩ নং মৌজার হেডম্যান সন্তোষ বিকাশ দেওয়ান ও ১৪৩ নং লুলাংছড়ি মৌজার হেডম্যান মায়া নন্দ দেওয়ান বলেন, নারীদের এগিয়ে যাওয়ার জন্য আমাদের সমাজকে সহযোগিতা করতে হবে। তাহলে নারীদের বৈষম্য দূর করা ও এলাকায় স্থায়ী উন্নয়ন করা সম্ভব হবে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রবর্তক চাকমা ও রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমা জানান, নারীদের কল্যাণে ও এলাকার উন্নয়নে মিতা চাকমার যথেষ্ট যোগ্যতা ও প্রতিভা রয়েছে। এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে জননেত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থী মিতা চাকমাকে নৌকা প্রতীকে জয়ী করা সময়ের দাবী।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment