বান্দরবানে ইসকনের ৫০ বছর পূর্তি উদযাপিত

বান্দরবান রিপোর্ট –

ISCON

আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ ইসকনের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বান্দরবানে সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করা হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় স্থানীয় ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ ইসকন বান্দরবান জেলার আয়োজনে সুবর্ণ জয়ন্তী পালন উপলক্ষে এক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ইসকনের জাতীয় কমিটির সভাপতি শ্রীযুক্ত সত্যরঞ্জন বাড়ৈর সভাপত্বিতে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কাজল কান্তি দাশ, পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য লক্ষ্মী পদ দাশ, কেন্দ্রীয় দূর্গা মন্দির কমিটির সহ-সভাপতি অমল কান্তি দাশ, ভারতের শ্রীধাম মায়াপুরের ইসকনের সাধারণ সম্পাদক মহা আর্শীবাদক শ্রীমৎ ভক্তিপুরুষোত্তম স্বামী মহারাজ, বাংলাদেশ ইসকনের সহ-সভাপতি শ্রীমৎ ভক্তিপ্রিয়ম গদাধর গোস্বামী মহারাজ, চট্রগাম ইসকনের বিভাগীয় সম্পাদক শ্রীপাদ চিন্ময় কৃষ্ণ দাস বহ্মচারী, বান্দরবান ইসকনের সভাপতি শ্রীমান উজ্বলবর্ণ গৌর দাস বহ্মচারীসহ ইসকনের বিভিন্ন কার্যনিবাহী কমিটির সদস্য ও সুধীজনেরা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশেসিং এমপি বলেন, ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার, আর এই রাষ্ট্রে বেঁচে থাকতে ধর্মীয় অনুশাসনকে মেনে চলা সবার দায়িত্ব ও কর্তব্য। তিনি এসময় আরো বলেন, ধর্ম কখনো কাউকে খারাপ করে না, মানুষ ধর্মকে খারাপ করে। ইসকনের ধর্ম প্রচারের মধ্য দিয়ে সারা বিশ্বে সনাতন ধর্ম একটি বিশেষ মর্যাদা লাভ করেছে, সনাতনী সমাজ বিভিন্নভাবে আরো এগিয়ে যাচ্ছে। প্রতিমন্ত্রী এসময় সনাতনী সমাজের উন্নয়নে প্রতিটি ব্যক্তিকে নিজ নিজ ধর্ম পালন ও রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব পালনে আরো বেশি দায়িত্ববান হবার জন্য অনুরোধ জানান। শেষে ইসকনের সদস্যদের আয়োজনে এক মনোরম সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

 

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment