বিশ্বের সবচেয়ে বড় টেলিস্কোপ

অনলাইন ডেস্ক –

Telescope

চীনে বিশ্বের সবচেয়ে বড় রেডিও টেলিস্কোপ স্থাপনের কাজ শেষ হয়েছে। আগামী সেপ্টেম্বরে এটি আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করা হবে। গত বুধবার টেলিস্কোপটিতে সর্বশেষ যন্ত্রাংশটি বসানো হয়।

চীনের গুইঝু প্রদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের কার্স্ট ভ্যালিতে ৫০০ মিটার ব্যাসের অ্যাপারেচার স্ফেরিক্যাল টেলিস্কোপটি বসানো হয়েছে। এটির নির্মাণে প্রায় ৩০০ লোক কাজ করেছে। এর বড় ডিশটিতে চার হাজার ৪৫০টি প্যানেল বসানো হয়েছে।

সরকারি বার্তা সংস্থা সিনহুয়া জানায়, ৩০টি ফুটবল মাঠের সমান আকারের এই টেলিস্কোপ প্রকল্পে ব্যয় হয়েছে ১৮ কোটি ডলার। এর সাহায্যে মহাকাশ ও ভিনগ্রহের প্রাণীদের বিষয়ে গবেষণায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশা করা হচ্ছে।

চায়নিজ একাডেমি অব সায়েন্সেসের আওতাধীন ন্যাশনাল অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল অবজারভেশন সংস্থার উপপ্রধান ঝেং শিয়াওনিয়ান জানান, টেলিস্কোপটি চূড়ান্তভাবে চালু করার আগে বিজ্ঞানীরা এটি পরীক্ষামূলকভাবে চালু করে এর ত্রুটি-বিচ্যুতি খুঁটিয়ে দেখবেন। তিনি বলেন, এই প্রকল্পের মাধ্যমে বিশ্বজগতের উত্পত্তি আর পৃথিবীর বাইরের সভ্যতার অনুসন্ধানে আরো বেশি ‘অদ্ভুত’ পদার্থ খুঁজে পাওয়ার সম্ভাবনা আছে। আগামী ১০ থেকে ২০ বছরে এটি নিজ ক্ষেত্রে বিশ্বে নেতৃত্ব দেবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।

সিনহুয়া জানায়, টেলিস্কোপটির সাহায্যে দূর ছায়াপথের নিউট্রাল হাইড্রোজেন ও অস্পষ্ট নক্ষত্র শনাক্ত করা যাবে। বিজ্ঞানীরা আশা করছেন, এর সাহায্যে এক হাজার আলোকবর্ষ দূরের দুই হাজারেরও বেশি নক্ষত্রের সন্ধান মিলবে। এ ছাড়া কম ফ্রিকোয়েন্সির অভিকর্ষজনিত তরঙ্গেরও সন্ধান পাওয়ার সম্ভাবনা আছে এর সাহায্যে। চীনের প্রখ্যাত বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী লেখক লিও সিশিন বলেন, ‘বিশ্বজগৎ আর পৃথিবীর বাইরের সভ্যতার গবেষণায় মানুষের জন্য এই টেলিস্কোপ অনেক গুরুত্বপূর্ণ হবে। আমি আশা করি, বিজ্ঞানীরা নবযুগ সৃষ্টিকারী আবিষ্কার আনতে পারবেন।’ প্রথম দুই-তিন বছর টেলিস্কোপটিতে আরো বাড়তি সংযোজন করা হবে। এরপর এটি বিশ্বব্যাপী বিজ্ঞানীদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।

এত দিন বিশ্বের সবচেয়ে বড় ব্যাসের অ্যাপারেচারের টেলিস্কোপ পুয়ের্তোরিকোতে। এর অ্যাপারেচারের ব্যাস প্রায় ৩০০ মিটার।    সূত্র – বিবিসি, টাইম

 

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment