নানা আয়োজনে বান্দরবানে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস উদযাপিত

বান্দরবান রিপোর্ট –

Rally

আদিবাসীদের শিক্ষা, ভূমি ও জীবনের অধিকার -এই স্লোগানকে সামনে রেখে নানা আয়োজনের মধ্যে দিয়ে বান্দরবানে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস উদযাপিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে র‌্যালি-আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

মঙ্গলবার (৯ আগষ্ট) সকালে দিবসটি উপলক্ষে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। এতে ১১টি আদিবাসী সম্প্রদায়ের নারী-পুরুষ তাদের ঐতিহ্যবাহী পোশাক পড়ে নানা সাড়ে শোভাযাত্রায় অংশ নেয়। এছাড়া আদিবাসীদের বিভিন্ন দাবী সম্বলিত ব্যানার ফেস্টুন প্লেকার্ড নিয়ে অংশ নেয় বান্দরবানের বিভিন্ন এলাকার আদিবাসীরা।

শোভাযাত্রাটি স্থানীয় রাজার মাঠ থেকে শুরু হয়ে বান্দরবানের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনষ্টিটিউটে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালি শেষে দিবসটি উপলক্ষে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনষ্টিটিউটের অডিটরিয়ামে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের সদস্য ক্যহ্লাউ মার্মার সভাপতিত্বে এ সময়ে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক মহিউদ্দিন মাহিম। এতে আরো বক্তব্য রাখেন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান থোয়াইচ প্রু মাস্টার, আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক লে লুং খুমী, বন ও ভুমি রক্ষা কমিটির সভাপতি জুয়াম লিয়ান আমলাই, দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি অং চ মং মার্মাসহ বিভিন্ন আদিবাসী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

আলোচনা সভায় বক্তারা সরকারকে পার্বত্য চট্রগ্রাম শান্তি চুক্তির সব ধারা দ্রুত বাস্তবায়নের পাশাপাশি  আদিবাসীদের সাংবিধানিক স্বীকৃতি প্রদানের জন্য আহ্বান জানান। পরে আদিবাসী বিভিন্ন সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ সময় বক্তারা আরো বলেন, আদিবাসীদের স্ব-স্ব মাতৃভাষার শিক্ষা চালু করা, শান্তি চুক্তির দ্রুত বাস্তবায়ন, পার্বত্য জেলায় অবৈধ বসবাসকারীদের উচ্ছেদসহ আদিবাসীদের  শিক্ষা, ভুমি ও জীবনের অধিকার নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সরকারের প্রতি আহবান জানান।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment