রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

প্রেস রিপোর্ট –

Meeting

দুর্নীতি একটি সামাজিক ব্যাধি, এর থেকে মুক্তি পেতে হলে আমাদের সমাজের প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের ব্যক্তিদেরকে পরিচ্ছন্ন হতে হবে। সকল ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে দুর্নীতির উর্ধে উঠে এ জেলা তথা দেশ গঠনে ভূমিকা রাখার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানিয়েছেন রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা। তিনি বলেন, এ পরিষদ জনগণের স্বার্থে সবসময় কাজ করে আসছে। ভবিষ্যতেও স্বচ্ছতার সাথে কাজ করে যাবে। জেলা, উপজেলা, ইউনিয়ন ও তৃণমূল পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি এবং প্রশাসন যদি সমন্বয় রেখে এ জেলার উন্নয়নে একসাথে কাজ করে তাহলে এ জেলা আগামীতে একটি মডেল জেলা হিসেবে পরিচিতি লাভ করবে।

অদ্য বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) সকালে রাঙ্গামাটি পর্যটন কমপ্লেক্স সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত পরিষদের আগস্ট ২০১৬ মাসিক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম জাকির হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্যাগণ, কর্মকর্তা এবং হস্তান্তরিত বিভাগের বিভাগীয় প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা জানান, বর্তমানে জেনারেল হাসপাতালে ১৮জন ডাক্তার কর্মরত আছেন যার মধ্যে ৭জন বিভিন্ন বিষয়ের কনসালটেন্ট। এছাড়া ডাক্তার ও নার্সের শূণ্যপদ পূরণের লক্ষে মন্ত্রণালয়ে পত্র প্রেরণ করা হয়েছে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বলেন, সদর উপজেলাধীন দক্ষিণ কুতুকছড়ি ও পাকুজ্যাছড়ি আবাসিক বিদ্যালয় ভবন ও তৎসংলগ্ন আবাসিক হোস্টেল পুননির্মাণের জন্য মন্ত্রণালয়ে পত্র প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, ইতিমধ্যে ২য় সাময়িক পরীক্ষা শেষ হয়েছে। এছাড়া বিদ্যালয়ে শিশুদের শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন না করার লক্ষ্যে বিদ্যালয়ে বিভিন্ন ধরনের সচেতনতামূলক প্লেকার্ড টাঙানো হয়েছে।

মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জানান, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে স্কুল ভিত্তিক বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজনের লক্ষ্যে একটি সম্ভাব্য বাজেট তৈরি করে পরিষদের প্রেরণ করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশনা মোতাবেক কাজ করা হবে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের খেলাধূলায় আগ্রহী করার লক্ষে গত ১০আগস্ট হতে গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে এবং জেলা পর্যায়েও শীঘ্রই খেলা শুরু হবে।

কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের কর্মকর্তা জানান, পার্বত্য জেলায় বিশেষ প্রকল্পের আওতায় জেলার স্ট্রবেরি চাষ, চারা উৎপাদন কার্যক্রম ও একটি পাহাড় একটি খামার প্রকল্পের কার্যক্রম চলছে।

জেলা প্রাণী সম্পদ বিভাগের কর্মকর্তা বলেন, আসন্ন কোরবানকে সামনে রেখে ১০টি উপজেলায় নিরাপদ গরু মোটাতাজাকরণে খামারীদের উব্ধুদ্ধ করা হচ্ছে। তিনি আশা করেন, জেলার গরুর চাহিদা মিটিয়ে বাইরেও রপ্তানি করা যাবে। এছাড়া চিকিৎসা ও প্রোডাকশন প্রদান ও উৎপাদন কার্যক্রম যথারীতি চলছে।

জেলা সমাজ সেবা বিভাগের কর্মকর্তা বলেন, ক্ষুদ্রঋণ, বয়স্ক ভাতা, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, প্রতিবন্ধী শিক্ষা ভাতা সঠিকভাবে প্রদান করা হচ্ছে।

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪১তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে জেলার ১০টি উপজেলায় প্রশিক্ষিত যুবদের মাঝে ঋণ প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া যুবকদের প্রশিক্ষণ প্রদান কার্যক্রম চলছে।

জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার জানান, চলতি মাসে শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ বিরোধী আলোচনাসভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনী করা হয়েছে।

সভায় অন্যান্য বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা এবং পরিষদ সদস্যবৃন্দ আলোচনায় অংশ নেন।

অরুনেন্দু ত্রিপুরা
১৮.০৮.২০১৬
জন সংযোগ কর্মকর্তা
রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ
ছবি এবং সংবাদ : লিটন শীল

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment