খাগড়াছড়িতে পাঁচ জেএমবি সদস্যের সাত বছর করে কারাদণ্ড

খাগড়াছড়ি রিপোর্ট –

jmb

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) পাঁচ সদস্যকে সাত বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন খাগড়াছড়ির আদালত। একই সঙ্গে তাদের দুই হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে, অনাদায়ে আরো দুই বছর কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

শনিবার জেলা ও দায়রা জজ এবং বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. ইনামুল হক ভুঁইঞার আদালত এই দণ্ডাদেশ দেন।

খাগড়াছড়ি জেলা ও দায়রা জজ আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট বিধান কানুনগো জানান, শনিবার জেলা ও দায়রা জজ এবং বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. ইনামুল হক ভূঁইঞার আদালতে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবি-র পাঁচ সদস্যকে সাত বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

তিনি আরো জানান, জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার শান্তিপুর এলাকায় ২০০৯ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে নিষিদ্ধ সংগঠন জেএমবির প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের সন্ধান পান নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। এ সময় সেখান থেকে শামীম আহমেদ পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও চার জেএমবি সদস্যকে আটক করা হয়।

পরদিন ওই পাঁচজনকে আসামি করে অস্ত্র ও বিস্ফোরক আইনে মাটিরাঙ্গা থানায় মামলা দায়ের করা হয়। মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিজানুর রহমান ২০০৯ সালের ১১ ডিসেম্বর চার্জ প্রদান করেন। দীর্ঘ শুনানি শেষে শনিবার দুপুরে এ রায় দেন বিজ্ঞ বিচারক।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হলেন, কুমিল্লা জেলার দেবীদ্বার উপজেলার ছুটনা গ্রামের জেএমবি চট্টগ্রাম অঞ্চলের দ্বিতীয় শীর্ষ নেতা আব্দুর রহিম ওরফে জাহিদ হোসেন, খাগড়াছড়ি মাটিরাঙ্গা উপজেলার শান্তিপুর গ্রামের দেলোয়ার হোসেন ওরফে সজীব, মো. ইউনুছ আলী ওরফে ইউনুছ ও সামছু মিয়া ও মো. শামীম আহমেদ। দণ্ডপ্রাপ্ত মো. শামীম আহমেদ পলাতক রয়েছেন।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment