কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় বান্দরবানে এক ধর্ষক আটক

বান্দরবান রিপোর্ট –

বান্দরবানে রাজপূণ্যাহ দেখতে এসে বাড়ি যাওয়ার পথে মারমা কিশোরীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় কাজল বড়ুয়া নামে এক ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।  রোববার (২৫ ডিসেম্বর) দুপুরে জেলা শহরের মধ্যমপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার রাত এগারটার দিকে শহরের শাপলা চত্বরের পৌরসভার শিশু পার্কের জন্য নির্ধারিত জায়গাতে এ ঘটনা ঘটেছে।  ভিকটিম ও তার প্রেমিক ওই চার দুর্বৃত্তকে না চিনলেও ঘটনার সময় একজনের নাম কাজল ও অন্যজন নিজেকে জুয়েল নাম পরিচয় দেওয়াতে এই দুইজনের নাম বলতে পারে। পরে বালাঘাটা এলাকায় অভিযান চালিয়ে কাজল বড়ুয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

কাজল বালাঘাটা এলাকায় কাজল মুন্ডি হাউসের (পাহাড়ি খাবার) মালিক বলে জানা গেছে। এদিকে ভিকটিমের প্রেমিকের ভাষ্য, শুক্রবার রাতে তারা বান্দরবানের ঐতিহ্যবাহী খাজনা আদায় অনুষ্ঠান রাজপূণ্যাহ মেলায় আসেন। রাত ১১টার দিকে হাঁটতে হাঁটতে রোয়াংছড়ি বাসস্টেশন এলাকার কাছাকাছি পৌরসভার শিশু পার্কের নির্ধারিত স্থানের কাছে পৌঁছায়। এ সময় প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেয়ার জন্য প্রেমিকাকে রেখে সে নির্জন জায়গায় যায়। ফিরে এসে দেখে চারজন যুবক তার প্রেমিকাকে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। প্রতিবাদ জানালে তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়। তাদের একজন নিজেকে যুবলীগের নেতা জুয়েল নাম পরিচয় দিয়ে তাদের কিছুই করতে পারবে না বলে ভয় দেখায়। ওই চার যুবককে চেনে না তারা। নিজেদের মধ্যে কথাবলার সময় একজন অন্যজনকে কাজল নামে ডাকছিল। এক পর্যায়ে ওই চার যুবক তার প্রেমিকাকে কুপ্রস্তাব দেয়। পরে প্রেমিককে বেঁধে রেখে প্রেমিকাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে দুর্বৃত্তরা।

ভিকটিমের মামাতো বোন থুইঞাইনু মারমা বলেন, শনিবার সকালে ভিকটিম বান্দরবান সদর থানায় উপস্থিত হয়ে চার যুবকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিক উল্লাহ জানান, কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় কাজল নামে এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে, বাকিদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

 

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment