খাগড়াছড়িতে সেনাবাহিনী কর্তৃক তিন ছাত্র আটকের নিন্দা ও প্রতিবাদ

১ ফেব্রয়ারি ২০১৭

বিবৃতি –

বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) -এর খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সভাপতি সোনায়ন চাকমা ও সাধারণ সম্পাদক অমল ত্রিপুরা আজ বুধবার (১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭) সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে গতকাল মঙ্গলবার রাত ৮টায় সেনাবাহিনী কর্তৃক খাগড়াছড়ি জেলা সদরের অনন্ত মাস্টার পাড়া থেকে তিন নিরীহ পাহাড়ি ছাত্রকে তাদের নিজ বাসা থেকে আটকের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন এবং আটককৃতদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি করেছেন।

বিবৃতিতে পিসিপি’র নেতৃবৃন্দ বলেন, বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় বাহিনী কর্তৃক রাতের আঁধারে বাসায় ঢুকে নিরপরাধ তিন ছাত্রকে অন্যায়ভাবে আটক করে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা খুবই দুঃখজনক। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ‘১১ নির্দেশনা’ জারির মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামে সেনা শাসনকে বৈধতা দেওয়ার কারণে সেনাবাহিনী কর্তৃক অন্যায়ভাবে নির্যাতন, ধরপাকড়, বাসায় ঢুকে তল্লাশি ও আটক করার ঘটনা বেড়েই চলেছে। তার জলন্ত প্রমাণ হচ্ছে গতকাল তিন জন নিরীহ ছাত্রকে আটক করার ঘটনা।

সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, সেনাবাহিনীর ছত্রছায়ায় তথাকথিত বাঙালি ছাত্র পরিষদ নামধারী উগ্র সাম্প্রদায়িক সেটলার বাঙালিরা প্রতিনিয়ত পাহাড়ি বিদ্বেষী সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা সৃষ্টি করে চলেছে। সাধারণ পাহাড়ি ছাত্র-ছাত্রীদের উপর হামলা, নির্যাতন ও ইভটিজিং এর মত ঘটনা ঘটার পরে অভিযোগ করলেও স্কুল-কলেজ প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নিয়ে উপরন্তু তাদের সহযোগিতা দিচ্ছে। হামলাকারী সেটলারদের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ না করে উল্টো নিরীহ পাহাড়ি ছাত্রদের আটক করা হচ্ছে।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে অন্যায়ভাবে আটককৃত তিন নিরীহ ছাত্র দেবেশ চাকমা, সজীব চাকমা ও কেপিলিয়ন চাকমার নিঃশর্ত মুক্তি ও এ ধরনের চলমান অন্যায় ধর-পাকড় বন্ধের দাবি জানান।

বার্তা প্রেরক –

সমর চাকমা
দপ্তর সম্পাদক
পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ
খাগড়াছড়ি জেলা শাখা।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment