পানছড়িতে পিকনিক ভণ্ডুল করে দেয়ায় নিন্দা ও প্রতিবাদ

১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭
প্রেস বিজ্ঞপ্তি –

ইউনাইটেড পিপল্স ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) খাগড়াছড়ি জেলা ইউনিটের সংগঠক প্রদীপন খীসা ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ রোজ শনিবার এক বিবৃতিতে পানছড়িতে স্থানীয় মুরুব্বীদের আয়োজিত গণ পিকনিক ভণ্ডুল ও ছয় ব্যক্তিকে মারধরের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে তিনি বলেন, ‘আজ ভোর রাত ৪টার দিকে মেজর রফিকের নেতৃত্বে পানছড়ি সাবজোনের সেনা-সহ যৌথ বাহিনীর একটি দল প্রথমে তারাবন্যার পাশের গ্রাম বাঘ্যাপাড়ায় উদঙ্গ মনি চাকমার বাসায় যায়। পরে সেখান থেকে তাকে ও তার বাড়িতে অবস্থানরত (পিকনিকের জন্য) লতিবান ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান ও প্রত্যাগত জুম্ম শরণার্থী নেতা শান্তি জীবন চাকমা,  উল্টাছড়ি ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান সুব্রত চাকমা ও মারমা ঐক্য পরিষদের পানছড়ি থানা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক রুবেল মারমাকে নিয়ে সেনারা জগপাড়ার পাশে পিকনিক স্পট ঘেরাও করে এবং রান্নার দায়িত্বে থাকা ছয় জনকে মারধর করে।

শারীরিক নির্যাতনের শিকার ব্যক্তিরা হলেন ভাইবোনছড়া ইউপির লাম্বাছড়া গ্রামের কুনেন্দু ত্রিপুরা (৩৮), ৪ নং লতিবান ইউপির নবীন চন্দ্র পাড়ার সোহাগ চাকমা (৫৮), লতিবান ইউপির উগলছড়ি গ্রামের বিমল কান্তি চাকমা (৪৫) এবং ৩ নং পানছড়ি ইউপির গুনু কার্বারী পাড়ার রতন সাঁওতাল (৩৫), মঙ্গল সাঁওতাল (২৮) ও রবি সাঁওতাল (৪৮)।

খবর পেয়ে সকালে পানছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সর্বোত্তম চাকমা, ১ নং লোগাং ইউপি চেয়ারম্যান প্রত্যুত্তর চাকমা, ২ নং চেঙ্গী ইউপির চেয়ারম্যান কালাচাঁদ চাকমা ও একই ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান অনিল চাকমাসহ কয়েক জন স্থানীয় মুরুব্বী অভয়মনি হেডম্যান পাড়ায় গিয়ে ঘটনার প্রতিবাদ জানান।

তাদের চাপের মুখে যৌথ বাহিনী নির্যাতিত ছয় ব্যক্তিসহ আটককৃত সবাইকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়।

প্রদীপন খীসা যৌথ বাহিনী কর্তৃক পিকনিক ভণ্ডুল করে দেয়ার ঘটনাকে নজিরবিহীন ও মৌলিক অধিকারের চরম লঙ্ঘন উল্লেখ করে বলেন, ‘পৃথিবীর অন্যতম বৃহৎ উন্মুক্ত কারাগার পার্বত্য চট্টগ্রামে এখন মধ্যযুগ চলছে। জনগণের কোন অধিকার নেই। বাক স্বাধীনতা, সংগঠন করার স্বাধীনতা, শান্তিপূর্ণ সমাবেশে মিলিত হবার স্বাধীনতা, এমনকি বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান আয়োজনের মতো স্বাধীনতা পর্যন্ত তাদের নেই।’

তিনি অবিলম্বে অন্যায় দমন পীড়ন বন্ধ করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

বার্তা প্রেরক –

নিরন চাকমা
প্রচার ও প্রকাশনা বিভাগ
ইউপিডিএফ।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment