রাঙ্গামাটিতে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের বর্ধিত সভা

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –

পাহাড়ে চাঁদাবাজি, অস্ত্রবাজি ও সন্ত্রাস একটি সামাজিক সমস্যা, এই সমস্যাকে সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে প্রতিহত করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য দীপংকর তালুকদার। তিনি শনিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

দীপংকর তালুকদার বলেন, সন্ত্রাসী ও অবৈধ অস্ত্রবাজদের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে উঠেছে। মানুষ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কথা বলতে সাহসী হয়ে উঠছে। সন্ত্রাস মোকাবেলায় প্রশাসনকেও সহায়তা দিচ্ছে। এই সামাজিক আন্দোলনকে আরো এগিয়ে নিতে তৃণমুল পর্যায়ের সাধারণ জনগনকে ঐক্যবদ্ধ করতে তিনি আওয়ামী যুবলীগ সহ দলের নেতা কর্মীদের প্রতি আহবান জানান।

রাঙ্গামাটি জেলা যুবলীগের সভাপতি পৌর মেয়র আকবার হোসেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা মাহামুদুর হক, মো. মিজানুর রহমান, তারিক আল হাসান লিও, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক জসিম উদ্দিন বাবুল, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মো. মুছা মাতব্বরসহ স্থানীয় যুবলীগ নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদ কাজল।

দীপংকর তালুকদার নিজের ব্যক্তি উন্নতির কথা চিন্তা পরিহার করে সমষ্টিগত উন্নয়নে এবং দলকে এগিয়ে নিতে মনোযোগী হতে যুবলীগ কর্মীদের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, আমরা ঐক্যবদ্ধ ছিলাম বলেই রাঙ্গামাটির দুটি পৌরসভা ছাড়াও বেশ কয়টি উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদে জয় লাভ করতে পেরেছি। এই জয় যাতে অব্যাহত থাকে তিনি সেই লক্ষ্যে কাজ করার জন্য দলের নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান।

বক্তারা বলেন, পার্বত্য এলাকায় অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার না করে কখনো সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব নয়। রাজনৈতিক দলগুলো যতই জনপ্রিয় ও শক্তিশালী হোক পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্রের কাছে পাহাড়ের মানুষ এখনো জিম্মি। তাই পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করে সন্ত্রাস দমনে সরকারকে পদক্ষেপ নিতে হবে। পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করে সন্ত্রাস দমনে সরকারকে পদক্ষেপ নেয়ার জোর দাবী জানানো হয় অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায়।

 

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment