বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা প্রদান

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –

দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের অবদান অপরিসীম। তাদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে‌ই আমরা আজ স্বাধীন জাতি হিসেবে পরিচিতি পেয়েছি।  তাদের এই আত্মত্যাগের মূল্য কিছুতেই শোধ হবে না। বর্তমান সরকার দেশের সকল মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে।

২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের প্রতি দেওয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা এসব কথা বলেন।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নান, পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসান, পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম জাকির হোসেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী কামাল উদ্দিন, পরিষদের সদস্য চাঁনমুনি চাকমা, জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমা’সহ রাঙ্গামাটি মুক্তিযোদ্ধা শহীদ পরিবারের সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের হাতে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

চেয়ারম্যান বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় দেশ মাতৃকার টানে সাধারণ মানুষ যেভাবে যুদ্ধে ঝাপিয়ে পরেছিল সেভাবে এখন দেশকে এগিয়ে নিতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। দেশে জঙ্গিবাদ মাথাচারা দিয়ে উঠায় উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি সমাজে জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে  মুক্তিযোদ্ধা’সহ সাধারণ মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি জেলা প্রসাশক মানজারুল মান্নান বলেন, দেশ যখন উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে তখনি জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস মাথাচারা দিয়ে উঠছে। এতে বিশ্বে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে। দেশকে উন্নতির দিকে নিতে হলে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসকে নির্মূল করতে হবে বলে উল্লেখ করে তিনি জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

পরে জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে মুক্তিযোদ্ধা এবং শহীদ পরিবারের সদস্যদের মাঝে উপহার সামগ্রী প্রদান করা হয়।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment