গুইমারায় আদিবাসী এক গৃহিনীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার

গুইমারা রিপোর্ট –

খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলার পাহাড়ি এলাকায় মহিনী ত্রিপুরা (৩৫) নামে এক গৃহিনীর গলা কাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার (৮ মে) ভোর সাড়ে ৫টার দিকে খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলার দলাদলি পাড়ার পাহাড়ের নীচে তার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত মহিনী ত্রিপুরা গুইমারা উপজেলার দলাদলি পাড়ার সুমন ত্রিপুরার স্ত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের মত সোমবার ভোর ৫টার দিকে বাড়ির পাশে পাহাড়ের নীচে কুয়া থেকে পানি আনতে যায় মহিনী ত্রিপুরা। কিছুক্ষণ পরে তার বড় ছেলে সুজন ত্রিপুরা কুয়ার পাশে মায়ের গলাকাটা লাশ দেখতে পায়। তার চিৎকারে প্রতিবেশীরা ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। পরে সেনাবাহিনী ও পুলিশকে জানালে তারা সকাল ৮টা দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে মহিনী ত্রিপুরার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে।

কী কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে তা নিশ্চিত করতে না পারলেও পুলিশ হত্যাকান্ডের কারণ উদঘাটনে তদন্ত করছে বলে জানিয়েছেন গুইমারা থানার অফিসার মো: জোবায়েরুল হক। লাশ ময়না তদন্ত শেষে নিহতের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment