রাজবন বিহারে শলক এলাকাবাসীর ১৩তম মহা সংঘদান উদযাপিত

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –

আজ শনিবার রাঙ্গামাটি রাজবন বিহারে শলক (জুরাছড়ি ও বরকল) এলাকাবাসীর উদ্যোগে ১৩তম সার্বজনিন মহাসংঘদান উদযাপন করা হয়। এ সময় শ্রীমৎ সাধনানন্দ মহাস্থবির বনভান্তের অন্যতম শিষ্য রাজবন বিহার অধ্যক্ষ শ্রীমৎ প্রজ্ঞালংকার মহাস্থবির ও তার শিষ্যমন্ডলী এবং বিশিষ্ট অতিথিবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার,  রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা, জেলা পরিষদ সদস্য জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমা ও সবির কুমার চাকমা, প্রাক্তন সাবজায দীপেন দেওয়ান। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন জুরাছড়ি সুবলং শাখা বনবিহার পরিচালনা কমিটি ও মহা সংঘদান উদযাপন কমিটির সভাপতি ধলকুমার চাকমা, সাধারণ সম্পাদক প্রচারক চাকমা, মহাসংঘদান উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক জগৎ জ্যেতি চাকমাসহ হাজারো বৌদ্ধ নর নারী।

অনুষ্ঠানের মধ্যে সকালে বুদ্ধ পূজা, বুদ্ধমূর্তি দান, সংঘদান, অষ্টপরিস্কার দান, পিন্ড দান, বাংলা ভাষায় ২৫ খন্ড ত্রিপিটক দানসহ নানাবিধ দানানুষ্ঠান সম্পন্ন করা হয়। এসময় বিশ্ব শান্তি কামনায় প্রার্থনা পত্র পাঠ করেন মহাসংঘদান উদযাপন কমিটির সভাপতি ধলকুমার চাকমা। এতে বক্তব্য রাখেন সাবেক পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার ও রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা।

বক্তব্যকালে দীপংকর তালুকদার বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষকে বেঁচে থাকতে হবে, কাজেই সবাইকে জ্ঞান, বুদ্ধি ও কৌশল নিয়ে বেঁচে থাকার আহবান জানান।

উক্ত অনুষ্ঠানে সদ্ধর্ম দেশনা প্রদান করেন রাজবন বিহার অধ্যক্ষ শ্রীমৎ প্রজ্ঞালংকার স্থবির ও ফুরোমোন আন্তর্জাতিক ভাবনা কেন্দ্রের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ ভৃগু মহাস্থবির। এ সময় রাজবন প্রধান সকল পূণ্যার্থীর উদ্দেশ্যে সকল জীবের প্রতি দয়া এবং মৈত্রী ভাব রেখে সৎ কর্মের মাধ্যমে জীবন যাপন করার উপদেশ প্রদান করেন।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment