আসন্ন দূর্গাপূজা উপলক্ষে রাঙ্গামাটি পৌরসভার আর্থিক সহায়তা

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –

সনাতন ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গা উৎসব সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে রাঙ্গামাটি পৌরসভা হতে পৌর এলাকার ১৩টি পূজামন্ডপ, বালুখালী ইউনিয়নে ১টি পূজা মন্ডপ এবং রাঙ্গামাটি জেলা পূজা উদযাপন পরিষদকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়। বৃহস্পতিবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী তার নিজ কার্যালয়ে বিভিন্ন মঠ মন্দিরের নের্তৃবৃন্দের হাতে এ নগদ অর্থ তুলে দেন।

এ সময় রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য ও ত্রিপুরা কল্যাণ ফাউন্ডেশনের সভাপতি স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা, রাঙ্গামাটি জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ বাদল চন্দ্র দে, পূজা উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব স্বপন কান্তি মহাজন, সনাতনি নেতা দেবব্রত চৌধুরী কুমকুম, পৌর কাউন্সিলর’সহ বিভিন্ন মঠ মন্দিরের নের্তৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে পৌর মেয়র বলেন, ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার, উৎসব সবার। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রেখে সকল ধর্মের মানুষ যাতে সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে যার যার ধর্ম ও উৎসব পালন করতে পারে সে লক্ষ্যে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, সরকারের পাশাপাশি আমাদেরকেও সম্প্রীতি বজায় রেখে কাজ করে যেতে হবে। আসন্ন দূর্গা উৎসব যাতে সুষ্ঠুভাবে পালন করতে পারে সেদিকে প্রশাসনের পাশাপাশি আমাদের সকলকে খেয়াল রাখতে হবে।

পরে তিনি পৌর এলাকার রিজার্ভ বাজার গীতাশ্রম মন্দিরে চার হাজার টাকা, তবলছড়ি রক্ষা কালী মন্দিরে চার হাজার টাকা, জালিয়া পাড়া বিশ্বনাথ মন্দিরে ১০ হাজার, ১৬ নং টিলা হরি মন্দিরে ১০ হাজার টাকা, স্বর্ণটিলা দূর্গা মন্দিরে চার হাজার টাকা, রিজার্ভ বাজার আইচ ভবন মন্দিরে চার হাজার টাকা, আসামবস্তি শীতলা মন্দিরে চার হাজার টাকা, পৌর কলোনি নারায়ণ মন্দিরে চার হাজার টাকা, ভেদভেদী কালি মাতৃ মন্দিরে চার হাজার টাকা, কলেজ গেইট দূর্গা মন্দিরে চার হাজার টাকা, দক্ষিণ কালিন্দীপুর দশভুজা মাতৃ মন্দিরে চার হাজার টাকা, কাঠালতলী দূর্গা মার্তৃ মন্দিরে চার হাজার টাকা, গর্জনতলী অখন্ড মন্ডলী মন্দিরে চার হাজার টাকা ও বালুখালী ইউনিয়নের কেল্লাপাহাড়ের কালী মন্দিরে চার হাজার টাকা এবং রাঙ্গামাটি জেলা পূজা উদযাপন পরিষদকে পাঁচ হাজার টাকা নেতৃবৃন্দের হাতে তুলে দেন।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment