খাগড়াছড়িতে শহীদ ভরদ্বাজ মুণির আত্মবলিদানের ২৫ বছর

১৩ অক্টোবর ২০১৭

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি –

যারা জনগণের জন্য জীবন উৎসর্গ করেন তারা অমর! এই স্লোগানে আজ শুক্রবার (১৩ অক্টোবর ২০১৭) পিসিপি’র গণতান্ত্রিক আন্দোলনের প্রথম শহীদ ভরদ্বাজ মুণি চাকমার ২৫তম শহীদ বার্ষিকীতে খাগড়াছড়িতে আলোচনা সভা করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি), হিল উইমেন্স ফেডারেশন (এইচডব্লিউএফ) ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম (ডিওয়াইএফ) খাগড়াছড়ি জেলা শাখা।

সকাল ১০টায় খাগড়াছড়ি জেলা সদরস্থ স্বনির্ভর বাজার ইউনাইটেড পিপলস্ ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)-এর কার্যালয়ে পিসিপি খাগড়াছড়ি জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তপন চাকমার সভাপতিত্বে ও দপ্তর সম্পাদক সমর চাকমার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় অংশ গ্রহণ করেন গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জিকো ত্রিপুরা, হিল উইমেন্স ফেডারেশন খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক রেশমি মারমা প্রমুখ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, গণতান্ত্রিক আন্দোলনের প্রথম শহীদ ভরদ্বাজ মুণি চাকমার আত্মবলিদান পার্বত্য চট্টগ্রামের গণতান্ত্রিক আন্দোলনের ইতিহাসে শিক্ষণীয় এক মাইলফলক হিসেবে বিবেচিত। তিনি ৭০ বছর বৃদ্ধ হয়েও পার্বত্য চট্টগ্রামের শাসক গোষ্ঠীর নিপীড়ন-নির্যাতন ও সকল ধরনের অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবার জন্য সেদিন পিসিপি আহুত সমাবেশে যোগ দিতে এসেছিলেন। কিন্তু রাষ্ট্রীয় সেনাবাহিনী, তাদের লাঠিয়াল বাহিনী ও দুর্বত্ত সেটলাররা তাকে নির্মমভাবে হত্যা করে এবং আহত হন অগণিত ছাত্র জনগণ। পার্বত্য চট্টগ্রামের ইতিহাসে এই দিনটি অন্যায়ের বিরুদ্ধে সাধারণ জনগণের প্রতিরোধ ও প্রতিবাদে সোচ্চার হওয়ার জন্য স্মরণীয় হয়ে থাকবে। জনগণের জন্য তাঁর সুমহান আত্মবলিদান পার্বত্য জুম্ম জনগণকে অত্যাচারী নিপীড়ক শাসকশ্রেণির বিরুদ্ধে যুগে যুগে রুখে দাঁড়ানোর অনুপ্রেরণা ও উৎসাহ যোগাবে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, শহীদ ভরদ্বাজ মুনির আত্মবলিদানের পথ বেয়ে অধিকার আদায়ের লড়াই সংগ্রাম আজ সকল বাধা বিপত্তি মোকাবেলা করে এগিয়ে যাচ্ছে। অধিকার আদায়ের এই লড়াই সংগ্রাম নিপীড়ন, নির্যাতন ও শাসক গোষ্ঠীর জুম্ম ধ্বংসের নীতি ও কার্যকলাপ থেমে না যাওয়া অবধি চলবে। সকল ধরনের বাধা বিপত্তি ও ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত মোকাবেলা করে পূর্ণ স্বায়ত্তশাসনের এই লড়াই একদিন বিজয় অর্জন করবে বলে নেতৃবৃন্দ দৃঢ় আশা ও প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

নেতৃবৃন্দ ভরদ্বাজ মুণি’র চাকমার হত্যাকারী সেনা-সেটলারদের বিচার ও শাস্তি প্রদানের দাবি জানান।

এছাড়া বক্তারা, শহীদ ভরদ্বাজ মুণি চাকমাসহ দেশ, জাতি, সমাজ পরিবর্তনের লক্ষ্যে নিয়োজিত থেকে যারা শহীদ হয়েছেন সে সকল শহীদদের কাছ থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে ও তাদের আত্মমর্যাদাকে অক্ষুন্ন রেখে আগামী দিনে পার্বত্য চট্টগ্রামে জনগণের ন্যায্য অধিকার পূর্ণ স্বায়ত্তশাসনের আন্দোলনে সামিল হতে ছাত্র-যুব-নারী সমাজসহ জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।

বার্তা প্রেরক,

(সমর চাকমা)
দপ্তর সম্পাদক
পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ
খাগড়াছড়ি জেলা শাখা।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment