সমবায় দিবসে রাঙ্গামাটিতে র‌্যালি ও আলোচনা সভা

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –

একটি উন্নত ও সমৃদ্ধশালী দেশ গঠনে সমবায়ীরা বড়ো ভূমিকা রেখেছে বলে মন্তব্য করেছেন রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নান। তিনি বলেন, সমবায় সমিতির মাধ্যমে যে কোন ছোট কাজকে বড়ো করা সম্ভব। ব্যক্তিগত উদ্যোগে যে কাজকে এগিয়ে নেয়া যায় না, সমবায় সমিতির মাধ্যমে সেই কাজকে এগিয়ে নেয়া যায়। পার্বত্য অঞ্চলের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মৎস্য চাষ, জুম চাষের পাশাপাশি সমবায় সমিতির মাধ্যমে উন্নয়নমুখী কাজ করা গেলে এই অঞ্চলে অর্থনৈতিক উন্নয়ন সম্ভব।

রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ, জেলা প্রশাসন ও জেলা সমবায় কার্যালয় এর আয়োজনে ৪৬তম জাতীয় সমবায় দিবস উপলক্ষে শনিবার (৪ নভেম্বর) রাঙ্গামাটি শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ সদস্য ও সমবায় বিভাগের আহ্বায়ক ত্রিদীব কান্তি দাশের সভাপতিত্বে জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ সদস্য সাধন মনি চাকমা, সদস্য মনোয়ারা আক্তার জাহান, বিআরডিবি কর্মকর্তা শাহেদা আলম, রাঙ্গামাটি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক পবন কুমার চাকমা, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক হাবিব উল্যা, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সাধারণ সম্পাদক মো: জসিম উদ্দিন বাবুল বক্তব্য রাখেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা সমবায় উপ-পরিচালক মো: ইউসুফ হাসান চৌধুরী।

আলোচনা সভা শেষে জেলার ৬ টি সমবায় সমিতিকে বিশেষ সম্মাননা, সনদ ও ক্রেষ্ট প্রদান করা হয়। ‘উৎপাদনমুখী সমবায় করি উন্নত বাংলাদেশ গড়ি’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে সকালে রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ কার্যালয় থেকে একটি র‌্যালি শুরু হয়ে তা প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে গিয়ে শেষ হয়।

র‌্যালিতে রাঙ্গামাটি জেলার সমবায় বিভাগের নিবন্ধনকৃত বিভিন্ন সমবায় সমিতির সদস্যরা ব্যানার ও ফ্যাষ্টুন নিয়ে অংশ গ্রহণ করেন। র‌্যালি শেষে জেলা শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে জাতীয় ও সমবায় পতাকা উত্তোলন করেন রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নান এবং রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ সদস্য ও সমবায় বিভাগের আহ্বায়ক ত্রিদীব কান্তি দাশ।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment