রাঙ্গামাটি সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –

পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্র বন্ধ না হলে আগামী নির্বাচন কখনোই সুষ্ঠু হবে না জানিয়েছেন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ সদস্য দীপংকর তালুকদার। তিনি আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে পাহাড়ের অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবী জানান। অবৈধ অস্ত্রের ব্যবহার পার্বত্য অঞ্চলে যেভাবে বেড়ে গেছে তাতে এলাকার সাধারণ মানুষ এখন ভীত সন্ত্রস্ত অবস্থায় রয়েছে। সাধারণ মানুষকে অবৈধ অস্ত্রধারীদের হাত থেকে রক্ষা করতে চিরুণী অভিযান চালানোর দাবী জানান তিনি।

শুক্রবার (১০ নভেম্বর) রাঙ্গামাটি সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

রাঙ্গামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী মিলনায়তনে রাঙ্গামাটি সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি হৃদয় রঞ্জন চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি চিংকিউ রোয়াজা, সহ-সভাপতি নিখিল কুমার চাকমা, রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি হাজী কামাল উদ্দিন, রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য মো: মুছা মাতব্বর, জেলা পরিষদ সদস্য স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদ সদস্য ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা অমিত চাকমা রাজু। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ সদস্য রাঙ্গামাটি সদর উপজেলার নেতা সাধন মনি চাকমা।

দীপংকর তালুকদার বলেন, পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠনগুলোর জন্য বড় আতংক হচ্ছে আওয়ামী লীগ। পাহাড়ে আওয়ামী লীগ করলেই ওদের যতো জ্বালা। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড দেখে এবং আঞ্চলিক সংগঠনগুলোর অবৈধ কাজ কর্মে তিক্ত-বিরক্ত হয়ে জনগণ আওয়ামী লীগ পতাকা তলে এসে আশ্রয় নিচ্ছে। প্রতিনিয়ত আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদেরকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে তারা। কিন্তু সাধারণ মানুষ তাদের ভয়ভীতি উপেক্ষা করে দলে দলে আওয়ামী লীগে যোগদান করছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

দীপংকর তালুকদার বলেন, পাহাড়ের মানুষের উন্নয়নে আওয়ামী লীগ কাজ করে যাচ্ছে। বর্তমান সময়ে পাহাড়ে যে উন্নয়ন হয়েছে তা মানুষের কাছে তুলে ধরতে হবে। পাহাড়ের উন্নয়ন মানুষের দোরগোড়ায় পৌছে দিতে আওয়ামী লীগের প্রতিটি নেতাকর্মীকে কাজ করে যেতে হবে। সময় আর বেশী দিন নেই। আগামী নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এই আসন উপহার দিতে হলে সকল ভয়ভীতি উর্ধে রেখে কাজ করে যেতে হবে।

এর আগে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং পায়রা উড়িয়ে বর্ধিত সভার উদ্বোধন করেন নেতৃবৃন্দ। রাঙ্গামাটি সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন কমিটির সভাপতি সাধারণ সম্পাদক পতাকা উত্তোলন করেন।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment