সেনাগোয়েন্দা কর্তৃক পিসিপি নেতাকে আটক চেষ্টার নিন্দা ও প্রতিবাদ

৪ নভেম্বর ২০১৭

বিবৃতি –

বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) খাগড়াছড়ি জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তপন চাকমা ও সাধারণ সম্পাদক অমল ত্রিপুরা আজ সোমবার (৪ ডিসেম্বর ২০১৭) সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে মানিকছড়ি গিরি মৈত্রী ডিগ্রী কলেজ শাখার সাধারণ সম্পাদক মংশি প্রু মারমাকে কলেজ ক্যাম্পাস থেকে সেনাবাহিনীর গোয়েন্দা কর্তৃক আটকের চেষ্টার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, মংশি প্রু মারমা প্রতিদিনের ন্যায় আজ সকালে এইচএসসি নির্বাচনী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে। পৌরনীতি বিষয়ে পরীক্ষা শেষে দুপুর ১টায় হলরুম থেকে বের হলে কলেজের ক্যাম্পাসে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা সেনাবাহিনীর গোয়েন্দারা বিমল চাকমাকে মারধর করার অভিযোগ এনে তাকে আটক করে নিয়ে যায়। পরে শিক্ষার্থীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে গোয়েন্দাদেরকে পিসিপি নেতাকে ছেড়ে দিতে বলে। বিষয়টি কলেজ অধ্যক্ষকে অবগত করলে কলেজ প্রশাসন নানান জটিলতার কথা বলে বিষয়টি আমলে না নেয়ায় শিক্ষার্থীরা গোয়েন্দাদের এই বেআইনি কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে কলেজ গেইটে প্রতিবাদ জানান। শিক্ষার্থীদের ব্যাপক প্রতিবাদের মুখে গোয়েন্দারা পিসিপি নেতা মংশি প্রু মারমাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়।

পিসিপি নেতৃদ্বয় প্রতিবাদ করার জন্য শিক্ষার্থীদের ধন্যবাদ জানান এবং আগামীতেও অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানান।

নেতৃদ্বয় আরো বলেন, এদেশে রাষ্ট্রীয় সেনাবাহিনী পার্বত্য চট্টগ্রামে নিরাপত্তার নামে জনগণকে শাসন-শোষণ-নির্যাতন অব্যাহত রেখেছে। সাধারণ ছাত্র-যুবক-নারী সমাজ থেকে শুরু করে আপামর জনগণ সেনাবাহিনীর এসব অন্যায় নিপীড়নের শিকার হচ্ছে। তাদের অন্যায় নিপীড়ন-নির্যাতনের ফলে পার্বত্য চট্টগ্রামের জনগণ আজ অতিষ্ট হয়ে পড়েছে।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, পার্বত্য অঞ্চলে ছাত্র সমাজের সংগ্রামী ও রাজনৈতিক চেতনাকে ধ্বংস করতে সেনাবাহিনী-সরকার প্রতিনিয়ত নানান ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। তারা এখানকার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে তাদের নিয়ন্ত্রণে পরিচালনা করতে অপচেষ্টা চালাচ্ছে। যার কারণে নান্যাচর কলেজে পিসিপি’র নবীন বরণ অনুষ্ঠানে ব্যবহৃত স্লোগানটিকে সুপরিকল্পিতভাবে ভিন্নখাতে নিয়ে গিয়ে ঐ কলেজের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে দিয়ে কলেজটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের অগণতান্ত্রিক সার্কুলার জারি করেছে।

বিবৃতিতে তারা রাষ্ট্রীয় সেনা-প্রশাসন ও গোয়েন্দা সংস্থার বেআইনি ও অন্যায় কর্মকাণ্ড বন্ধ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সেনা হস্তক্ষেপ বন্ধ করা, এবং মানিকছড়ি কলেজসহ পার্বত্য চট্টগ্রামের সকল শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি জানান।

বার্তা প্রেরক –

সমর চাকমা

দপ্তরসম্পাদক

পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ

খাগড়াছড়ি জেলা শাখা।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment