সমাবেশে হামলা ও আটকের নিন্দা পিসিপি’র

২৩ ডিসেম্বর ২০১৭
প্রেস বিজ্ঞপ্তি –

বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) সেনা-প্রশাসন কর্তৃক গুইমারাতে পিসিপি’র সমাবেশে নেতা কর্মীদের ওপর হামলা ও ২ জনকে আটকের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে। সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত বিবৃতিতে এ নিন্দা জানান খাগড়াছড়ি জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তপন চাকমা ও সাধারণ সম্পাদক অমল ত্রিপুরা।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, সরকার চরম ফ্যাসিবাদী মূর্তিতে আবির্ভূত হয়েছে। পার্বত্য চট্টগ্রামে এ ফ্যাসিবাদী থাবা আরো বেশি। শান্তিপূর্ণ সভা-সমাবেশের ওপর সেনা-প্রশাসনের হামলা-হস্তক্ষেপ প্রতিনিয়ত চলছে।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় আরো বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে দমনপীড়নের মহোৎসবে মেতে ওঠেছে সেনা-প্রশাসন। প্রতিনিয়ত চলছে ধরপাকড়- নির্যাতন। দমনপীড়নের খড়গ শিক্ষার্থীদের ওপরও পড়ছে। ফলে শিক্ষার্থীদের আটক- নির্যাতনের মত ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটে চলেছে। সরকার-শাসকগোষ্ঠীর ফ্যাসিবাদী থাবা কতদূর প্রসারিত হয়েছে তা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অগণতান্ত্রিক সার্কুলার জারির মাধ্যমে স্পষ্ট হয়েছে।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় আটক ২ জন শিক্ষার্থীর নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান।

উল্লেখ্য, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অগণতান্ত্রিক সার্কুলার প্রত্যাহারসহ ৮ দফা বাস্তবায়নরে দাবিতে পিসিপি’র পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ ২৩ ডিসেম্বর (শনিবার) গুইমারায় সমাবেশ হয়। সমাবেশ শেষে ফেরার পথে সেনাবাহিনী ও পুলিশ অতর্কিতে হামলা চালিয়ে দু’জন ছাত্রকে আটক করে এবং পুলিশের ছোঁড়া রাবার বুলটেে একজন বিদ্ধ হয়।

বার্তা প্রেরক –
সমর চাকমা
দপ্তর সম্পাদক
পিসিপি, খাগড়াছড়ি জেলা শাখা

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment