রাঙ্গামাটিতে জেলা উন্নয়ন কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

প্রেস রিপোর্ট –

রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা উন্নয়ন কমিটির সভা মঙ্গলবার (২৬ ডিসেম্বর) সকালে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সভাকক্ষে আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা। পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা ছাদেক আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য গুনেন্দু বিকাশ চাকমা, রাঙ্গামাটি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: জাহাঙ্গীর আলম’সহ জেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় সভাপতির বক্তব্যে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেন, সমন্বয় ছাড়া জেলা তথা দেশের উন্নয়ন ঘটানো সম্ভব নয়। তাই প্রতিটি সমন্বয় সভায় প্রতিষ্ঠান প্রধান ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের উপস্থিত থেকে সমস্যা ও সম্ভবনার কথা তুলে ধরার আহ্বান জানান তিনি। তিনি বলেন, আমরা যদি যার যার অর্পিত দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করি তাহলে এ জেলার বসবাসরত মানুষের উন্নয়ন আরও বেগবান হবে।

সভায় আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য গুনেন্দু বিকাশ চাকমা বলেন, এ জেলার সার্বিক উন্নয়নে এ ধরনের সভা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ সভায় কমিটি ও প্রতিষ্ঠান প্রধানদের উপস্থিতি এবং পরামর্শ জেলার উন্নয়ন ত্বরান্বিত করবে। তিনি পার্বত্য জেলার সার্বিক উন্নয়নে আঞ্চলিক পরিষদ সবসময় পাশে থাকবে বলে আশ্বাস প্রদান করেন।

সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: জাহাঙ্গীর আলম বলেন, বিজয়ের মাসে যেসব অনুষ্ঠানগুলো অনুষ্ঠিত হয়েছে সেগুলোতে সকলের সহযোগিতা পাওয়ায় ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন, রাঙ্গামাটিতে আগত পর্যটকদের নিরাপত্তার কথা ভেবে বিভিন্ন পয়েন্টে চেক পোষ্ট বসিয়ে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। যাতে করে পর্যটকরা নিরাপদে ও স্বচ্ছন্দে ঘুরাফেরা করতে পারেন। তিনি সন্ত্রাস ও মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশ প্রশাসন হতে সবসময় কঠোর কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে বলে সভাকে জানান। তবুও যে কোন স্থানে মাদক বিক্রি ও সেবনের কোন তথ্য থাকলে তা পুলিশ প্রশাসনকে জানানোর জন্য অনুরোধ জানান।

শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী প্রিসলি চাকমা বলেন, বাঘাইছড়ির শিজক মুখ কলেজ, রাঙ্গামাটি সরকারি কলেজ, উলুছড়ি হাই স্কুলসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

সভায় কর্ণফুলী পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক শফি উদ্দিন আহমদ বলেন, বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রে বর্তমানে ৪টি ইউনিট চালু রয়েছে। লেকের পানির লেভেলও স্থিতিশীল রয়েছে।

গণপূর্ত বিভাগের প্রকৌশলী বলেন, কাউখালী ফায়ার স্টেশন ভবনটি সম্পন্ন করা হয়েছে। এছাড়া লংগদু ও রাজস্থলী ফায়ার স্টেশনের জায়গা ক্রয়ের জন্য অর্থ জেলা প্রশাসন কার্যালয়ে জমা দেওয়া হয়েছে। জায়গা বুঝিয়ে দিলে স্টেশনের ভবন নির্মাণের কাজ শুরু করা হবে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী (চ:দা) বলেন, রাঙ্গামাটি-চট্টগ্রাম সড়কের রাউজান-রাবার বাগান পর্যন্ত সড়ক উন্নয়নের কাজ চলছে। এছাড়া রাণীরহাট হতে ৩৬ কি:মি পর্যন্ত রাস্তা প্রশস্ত ও সৌন্দর্যকরণের জন্য টেন্ডার প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। এতে করে রাঙ্গামাটি-চট্টগ্রাম সড়কটি পর্যটকদের কাছে আরও আকর্ষণীয় হবে। তিনি বলেন, গত ১৩ জুন প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা মেরামতের কাজ চলছে।

বাংলাদেশ বেতার এর আঞ্চলিক পরিচালক এসএম মোস্তফা বলেন, বিজয়ের মাস উপলক্ষে মাসব্যাপী মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক অনুষ্ঠান সম্প্রচার চলছে। এছাড়া রাঙ্গামাটির মহিলা সাংসদ, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রাক্তন প্রতিমন্ত্রী ও সাংবাদিকদের সমন্বয়ে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক আলোচনা সভা সম্প্রচার করা হয়েছে।

এছাড়া সভায় উপস্থিত অন্যান্য বিভাগীয় কর্মকর্তাগণ স্ব স্ব বিভাগের কার্যক্রম উপস্থাপন করেন।

অরুনেন্দু ত্রিপুরা
জন সংযোগ কর্মকর্তা
রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ
ছবি এবং সংবাদ : লিটন শীল।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment