প্রবল বাধা কাটিয়ে খাগড়াছড়িতে মুখোশ বাহিনী প্রতিরোধ দিবস পালিত

৭ মার্চ ২০১৮

প্রেস বিজ্ঞপ্তি –

আজ বুধবার (৭ মার্চ ২০১৮) সকাল ৭টায় পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) -হিল উইমেন্স ফেডারেশন (এইচডব্লিউএফ) ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম (ডিওয়াইএফ) তিন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উত্তর খবংপুজ্জ্যায় শহীদ অমর বিকাশ চাকমার স্মৃতিস্তম্ভে যথাযোগ্য মর্যাদায় পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছেন। এক মিনিট নীরবতা পালনের মাধ্যমে তারা শহীদ অমর বিকাশসহ পার্বত্য চট্টগ্রামে গণতান্ত্রিক আন্দোলনে আত্মবলিদানকারী সকল শহীদদের প্রতি সম্মান জানান। এ সময় সমবেতদের উদ্দেশ্যে ’৯৬ সালের প্রেক্ষাপট তুলে ধরে শহীদ অমর বিকাশ থেকে প্রেরণা নিয়ে অধিকার আদায়ের আন্দোলনে আত্মবলিদানের জন্য প্রস্তুত থাকতে নেতৃবৃন্দের পক্ষ থেকে আহ্বান জাননো হয়।

পুষ্পস্তবক অর্পণ ও আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে তিন সংগঠনের নেতা-কর্মীগণ স্বনির্ভর বাজারস্থ ইউপিডিএফ কার্যালয়ে ফিরে এসে পরবর্তী কর্মসূচির জন্য অবস্থান নেয়। ১০টার দিকে খবংপুজ্জ্যার দিক থেকে তিন পিক-আপ সেনা ইউপিডিএফ কার্যালয়ে তেড়ে আসে এবং নেমপ্লেটহীন এক মেজরের নেতৃত্বে অতর্কিতে তিন সংগঠনের নেতা-কর্মীদের ওপর হামলা চালায়। লাথি-ঘুষি ধাক্কা দিয়ে টেনে হেঁচড়ে অফিস থেকে তাদের তাড়িয়ে দিতে চাইলে উপস্থিত নেতা-কর্মীগণ আত্মরক্ষার্থে প্রতিরোধ করে। এতে কুলিয়ে উঠতে না পেরে সেনা জওয়ানরা পিছু হটে যেতে বাধ্য হয়। সেনা কর্তৃক ইউপিডিএফ অফিসে আক্রমণের সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে আশেপাশের এলাকা থেকে লোকজন ছুটে এসে তিন সংগঠনের নেতা-কর্মীদের প্রতিরোধে যোগ দেয়। অন্যদিকে ওসি’র নেতৃত্বে পুলিশ আক্রমণকারী সেনাদের সাথে যুক্ত হয়ে টিয়ার শেল ও রাবার বুলেট ছুঁড়ে। দু’ঘণ্টা ধরে পুলিশ ও সেনা সদস্যদের সাথে বিক্ষুব্ধ ছাত্র-জনতার ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলে। সেনা-পুলিশের হামলায় তিন সংগঠনের আট/দশজন কর্মী আঘাতপ্রাপ্ত হয়।

পরে বিক্ষুব্ধ ছাত্র-জনতাকে শান্ত করতে ঘটনাস্থলে খাগড়াছড়ি জেলা এএসপি সালাহ উদ্দীন, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও), ওসি তারেক মাহাম্মুদ হান্নানসহ পুলিশের কর্মাকর্তারা এসে পৌঁছলে উপস্থিত জনতা বিনা প্ররোচনায় শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে বাধাপ্রদান ও হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়। প্রশাসন ও পুলিশের কর্মকর্তাগণ শান্তিপূর্ণ সমাবেশে বাধা না দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিলে সেখানে উপস্থিত জনতাকে নিয়ে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এতে ইউপিডিএফ নেতা দেবদন্ত ত্রিপুরা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক রেশমি মারমা, পিসিপি’র খাগড়াছড়ি জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তপন চাকমা ও সাধারণ সম্পাদক অমল ত্রিপুরা বক্তব্য রাখেন। তারা পূর্ব ঘোষিত শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে বিনা প্ররোচনায় হামলার জন্য সেনা-পুলিশ ও প্রশাসনকে দায়ী করেন। তারা অধিকার আদায়ের স্বার্থে শহীদ অমর বিকাশের মতো আত্মবলিদানের অঙ্গীকার করেন।

সন্ধ্যায় শহীদ অমর বিকাশ স্মরণে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করা হয়।

উল্লেখ্য, ২২-২৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশনে অনুষ্ঠিত ছাত্র-যুব-নারী কনভেনশনে ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ ৭ মার্চ ছিল শহীদ অমর বিকাশ স্মরণে সমাবেশ ও আনুষ্ঠানিকতা পালন করা হয়।

বার্তা প্রেরক

সমর চাকমা
দপ্তর সম্পাদক
পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ
খাগড়াছড়ি জেলা শাখা

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment