স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার প্রতিবাদে এইচডব্লিউএফ-এর বিক্ষোভ

২৬ মার্চ ২০১৮

প্রেস বিজ্ঞপ্তি –

মাটিরাঙ্গায় সেটলার কর্তৃক এক পাহাড়ি স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা ও কুপিয়ে জখম করার প্রতিবাদে এবং ঘটনার সাথে জড়িত মো: মাসুদকে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে হিল উইমেন্স ফেডারেশন(এইচডব্লিউএফ) খাগড়াছড়ি জেলা শাখা।

আজ সোমবার (২৬ মার্চ ২০১৮) বেলা ৩ টায় খাগড়াছড়ি জেলা সদর স্বনির্ভরের ইউনাইটেড পিপল্স ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)-এর কার্যালয়ের সামনে থেকে এক বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে নারাঙহিয়া রেড স্কোয়ার, উপজেলা ও চেঙ্গী স্কোয়ার প্রদক্ষিণ করে পুনরায় স্বনির্ভরে এসে শহীদ অমর বিকাশ চাকমা সড়কে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সভাপতি দ্বিতীয়া চাকমার সভাপতিত্বে ও সদস্য এন্টি চাকমার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের (পিসিপি) জেলা শাখার সভাপতি তপন চাকমা ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক জীবন চাকমা প্রমুখ।

সমাবেশ থেকে বক্তারা উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়ি নারীরা কোথাও নিরাপদ নয়। গতকাল মাটিরাঙ্গার আমতলি ইউনিয়নে রনেশ কার্বারী পাড়া এলাকায় স্কুল থেকে ফেরার পথে ৮ম শ্রেণীর পাহাড়ি স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা ও কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। এর আগে গত ৮ মার্চ গোমতিতে এক পাহাড়ি কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়। এসব জঘন্য ঘটনায় জড়িত অপরাধীদের উপযুক্ত শাস্তি না হওয়ায় বার বার এ ধরনের ঘটনা ঘটছে।

বক্তারা আরো বলেন, গত ১৮ মার্চ প্রকাশ্য দিবালোকে রাঙ্গামাটির কুদুকছড়ি থেকে সেনা মদদপুষ্ট নব্য মুখোশ বাহিনীর সন্ত্রাসীরা হিল উইমেন্স ফেডারেশনের দুই নেত্রীকে অপহরণ করে। আজ ৮ দিন পেরিয়ে গেলেও প্রশাসন অপহৃত দুই নেত্রীকে উদ্ধারে কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না। এতেই প্রমাণ হয় যে প্রশাসনই সন্ত্রাসীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দিয়ে লালন-পালন করছে।

বক্তারা অবিলম্বে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টাকারী মো: মাসুদকে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি, অপহৃত হিল উইমেন্স ফেডারেশনের দুই নেত্রীকে উদ্ধারপূর্বক সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবি জানান।

বার্তা প্রেরক

রেশমি মারমা
সাংগঠনিক সম্পাদক
হিল উইমেন্স ফেডারেশন জেলা শাখা।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment