নান্যাচরের হত্যাকাণ্ডে ১১৮ জনের বিরুদ্ধে দুটি অভিযোগ দায়ের

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –

নান্যাচরের সাম্প্রতিক হত্যাকাণ্ডের ৬ দিন পর নান্যাচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট শক্তিমান চাকমা ও গণতান্ত্রিক ইউপিডিএফ প্রধান তপন জ্যোতি চাকমা সহ ৫ নেতা হত্যার ঘটনায় ১১৮ জনের নাম উল্লেখ করে দুটি পৃথক অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। বুধবার (৯ মে) দুপুরে নান্যাচর থানায় গত ৩ মে শক্তিমান চাকমা হত্যার ঘটনায় তার সহকারী রূপম চাকমা এবং ৪ মে তপন জ্যোতি চাকমা হত্যার ঘটনায় তার আত্মীয় অচিন চাকমা বাদী হয়ে দুটি অভিযোগ দায়ের করেন।

হত্যাকান্ডের ৬ দিন পর শক্তিমান চাকমার হত্যা ঘটনায় আহত রূপম চাকমা বাদী হয়ে ৪৬ জনের নাম উল্লেখ করে এবং গণতান্ত্রিক ইউপিডিএফ প্রধান তপন জ্যোতি চাকমা ওরফে বর্মাসহ অপর ৪ জন হত্যাকান্ডের ঘটনায় তপন জ্যোতি চাকমা বর্মার আত্মীয় অচিন চাকমা বাদী হয়ে ৭২ জনের নাম উল্লেখ করে নান্যাচর থানায় দুটি পৃথক অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ জানায় অভিযোগ পাওয়ার তা যাচাই বাছাই করে মামলার প্রস্তুতি নেয়া হবে।

এদিকে রাঙ্গামাটি বাঘাইছড়ি উপজেলায় বিশেষ অভিযানে পুলিশ বাঘাইছড়ি উপজেলা পার্বত্য চট্টগ্রাম জন সংহতি সমিতির উপজেলা সভাপতি প্রভাত কুমার চাকমা ও ইউপিডিএফ সমর্থিত সাজেক ইউপি চেয়ারম্যান নেলসন চাকমাকে আটক করা হয়েছে। বাঘাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিন হোসেন এই সত্যতা স্বীকার করেন।

উল্লেখ্য, গত  ৩ মে  আততায়ীর গুলিতে নিহত হন রাঙ্গামাটির নানিয়াচর উপজেলা চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা। এর পরদিনই তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় যাওয়ার পথে হামলার শিকার হয়ে নিহত হন ‘ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক’ দলের প্রধান তপন জ্যোতি চাকমা বর্মাসহ ৫জন। খাগড়াছড়ি থেকে একটি মাইক্রোবাস করে নান্যাচর আসার পথে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা অস্ত্রধারীরা তাদের ব্রাশ ফায়ার করে হত্যা করে।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment