ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে তিন সংগঠনের বিক্ষোভ

১০ জুলাই ২০১৮

প্রেস বিজ্ঞপ্তি –

রাউজানে এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা ও কাউখালীতে সেটলার কর্তৃক এক মারমা নারীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি), হিল উইমেন্স ফেডারেশন (এইচডব্লিউএফ) ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম (ডিওয়াইএফ) খাগড়াছড়ি জেলা শাখা।

আজ মঙ্গলবার (১০ জুলাই ২০১৮) বেলা আড়াইটায় মিছিলটি ইউনাইটেড পিপল্স ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)-এর জেলা কার্যালয়ের সামনে থেকে বের হয়ে জেলা পরিষদ ও রেড স্কোয়ার হয়ে উপজেলা পরিষদ প্রদক্ষিণ করে স্বনির্ভর বাজারের শহীদ অমর বিকাশ চাকমা সড়কে এসে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক রতন স্মৃতি চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের জেলা সহ সাধারণ সম্পাদক অবনিকা চাকমা ও পিসিপি খাগড়াছড়ি জেলা শাখার দপ্তর সম্পাদক সমর চাকমা প্রমুখ।

বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, গত ৫ জুলাই রাউজান ডাবুয়া হিংগলা ওয়ারা পুঞঞা বৌদ্ধ অনাথ আশ্রম থেকে অম্যাচিং মারমাকে হত্যা করার কয়েকদিন যেতে না যেতে গতকাল রাঙ্গামাটি জেলা কাউখালীতে কাশখালী ও বটতলা মধ্যবর্তী এলাকায় সেটলার মো: শাকিব এক মারমা নারীকে একা পেয়ে ধর্ষণ করে। প্রশাসন এইসব ঘটনার সাথে জড়িতদের এখনো পর্যন্ত গ্রেফতার করতে পারিনি। আজ দুপুরেও খাগড়াছড়ি শহর স্বনির্ভর এলাকায় দুই জন সেটলার কর্তৃক ৫ পাহাড়ি স্কুল ছাত্রী ইভটিজিং-এর ঘটনা শিকার হয়েছে।

তারা আরো বলেন, বাংলাদেশ এখন নারী নির্যাতন ও ধর্ষণের ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটছে। স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় কিংবা ঘরে বাইরে প্রতিদিন কেউ না কেউ ধর্ষণ-খুন-গুম-হত্যা ও অপহরণের শিকার হতে হচ্ছে। এসব ঘটনায় অপরাধীদের গ্রেফতার ও সুষ্ঠু বিচার না করায় অপরাধীরা এসব ঘটনা বার বার ঘটাচ্ছে। দেশে নারীরা আজ অনিরাপদ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সমাবেশ থেকে বক্তারা. রাউজানে স্কুল ছাত্রী হত্যা ও কাউখালীতে সেটলার বাঙালি কর্তৃক এক মারমা নারী ধর্ষণের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান এবং অবিলম্বে সুষ্ঠু তদন্তর মাধ্যমে অপরাধীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবি জানান।

বার্তা প্রেরক,

এন্টি চাকমা

সদস্য, হিল উইমেন্স ফেডারেশন

খাগড়াছড়ি জেলা শাখা।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment