বান্দরবানে দুই ত্রিপুরা কিশোরীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে চট্টগ্রামে বিক্ষোভ

২৪ আগস্ট ২০১৮

প্রেস বিজ্ঞপ্তি –

বান্দরবানে লামা উপজেলাধীন ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নে ১নং ওয়ার্ডে রাংখতি ত্রিপুরা পাড়ায় বিজিবি’র ৩ সদস্য কর্তৃক দুই ত্রিপুরা কিশোরীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে হিল উইমেন্স ফেডারেশন, গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন চট্টগ্রামে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে।

আজ শুক্রবার (২৪ আগস্ট ২০১৮) বিকাল সাড়ে ৩টায় ডিসি হিল মোড়ের সামনে থেকে একটি মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি চেরাগী পাহাড় মোড় প্রদক্ষিণ করে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে গিয়ে প্রতিবাদ সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।

পিসিপি’র চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার নেতা মিটন চাকমা’র সঞ্চালনায় গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের মহানগর শাখা সভাপতি থুইক্য চিং মারমা’র সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পিসিপি’র কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অনিল চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশন-এর চট্টগ্রাম মহানগর নেত্রী জলেখা চাকমা ও পিসিপি’র চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা সদস্য রোনাল চাকমা প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে রাষ্ট্রের নিয়োজিত বাহিনী কর্তৃক নারী ধর্ষণের ঘটনার সাথে জাতিগত নিপীড়ন অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত। ধর্ষণকে জাতিগত নিপীড়নের হাতিয়ার হিসেবেই ব্যবহার করা হচ্ছে।

বক্তারা আরো বলেন সংবিধানে আইন সবার জন্য সমান উল্লেখ থাকলেও বাস্তবে প্রয়োগ হচ্ছে না। আইন-শৃংখলা বাহিনীর কোন সদস্য কর্তৃক নির্যাতনের ঘটনা প্রমাণিত হওয়ার পরও অপরাধীদের রক্ষা করতে সব ধরনের ক্ষমতা প্রয়োগ করা হয়। কল্পনা চাকমা অপহরণ, বিলাইছড়িতে দুই মারমা নারীকে ধর্ষণ-নির্যাতন ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনুকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় সেনাবাহিনীর সদস্য জড়িত ছিল, কিন্তু তাদের বিচার তো দূরের কথা, আইনের আওতায়ও আনা হয়নি। একইভাবে নান্যাচর কলেজের ছাত্র রমেল চাকমাকে নির্যাতন চালিয়ে হত্যা করা হলেও হত্যাকারী সেনা সদস্যরা এখনো বহাল তবিয়তে রয়েছেন। এই যে বিচারহীনতা, এর মাধ্যমেই রক্ষকরা ভক্ষকে পরিণত হয়েছে।

বক্তারা অবিলম্বে দুই ত্রিপুরা কিশোরীকে ধর্ষণের সাথে অভিযুক্ত বিজিবি’র ত্রিশডেবা ক্যাম্পের নায়েক রবিউল, সৈনিক মারুফ ও সুমনকে দ্রুত গ্রেপ্তার করে বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

উল্লেখ্য, গত ২২ আগষ্ট বুধবার রাত ১০টার সময় বান্দরবানে লামা উপজেলায় ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে রাংখতি ত্রিপুরা পাড়ায় ত্রিশডেবা ক্যাম্পের বিজিবি’র নায়েক রবিউল, সৈনিক মারুফ ও সুমন কর্তৃক দুই ত্রিপুরা কিশোরীকে ডেকে নিয়ে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। আজ শুক্রবার (২৪ আগস্ট) ধর্ষণের শিকার ত্রিপুরা কিশোরীদ্বয়কে বান্দরবান সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে এবং ভিকটিম কিশোরীদের বড় ভাই বাদী হয়ে অভিযুক্ত বিজিবি’র ৩ সদস্যের বিরুদ্ধে লামা থানায় মামলা দায়ের করেছে।

বার্তা প্রেরক –

জলেখা চাকমা
আহবায়ক
হিল উইমেন্স ফেডারেশন
চট্টগ্রাম মহানগর।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment