উপজেলা চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা হত্যা মামলার আসামী আটক

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –

রাঙ্গামাটির নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট শক্তিমান চাকমার হত্যা মামলার অন্যতম আসামী ইউপিডিএফ (প্রসিত) গ্রুপ সমর্থিত পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) রাঙ্গামাটি জেলা সভাপতি কুনেন্টু চাকমাকে গুলিসহ একটি বিদেশী পিস্তল ও নগদ ৪ লক্ষাধিক টাকা সহ আটক করেছে যৌথ বাহিনী। শনিবার (২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাঙ্গামাটির কুতুকছড়ির উত্তর পাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে যৌথ বাহিনী কুনেন্টু চাকমাকে আটক করে।

পুলিশ সূত্রে জানানো হয়, গোপন সুত্রে খবর পেয়ে কুতুকছড়ির উপর পাড়া এলাকায় যৌথ বাহিনী এ অভিযান চালায়। এ সময় ইউপিডিএফ-এর বেশ কয়জন একত্রিত হয়ে চাঁদার টাকা ভাগাভাগি নিয়ে বৈঠক করছিল। অভিযানের সময় কুনেন্টু চাকমাকে গ্রেফতার করা গেলেও বাকীরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। অভিযানে ৪ টি মোবাইল ও ইউপিডিএফ-এর চাঁদা আদায়ের রশিদ উদ্ধার করা হয়। রাঙ্গামাটি কোতয়ালী থানায় আটককৃতের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

পুলিশ সূত্র জানায়, রাঙ্গামাটির কুতুকছড়ি এলাকায় ইউপিডিএফ প্রসিত গ্রুপের চীফ কালেক্টর রবি চন্দ্র চাকমা ওরফে অর্কিড চাকমা ওরফে অর্ণব বাবু, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের আহবায়ক ধর্মসিংহ চাকমা, ইউপডিএফ কাউখালী উপজেলার সংগঠক সম্রাট চাকমা, সশস্ত্র গ্রুপের সদস্য রনজিত চাকমাসহ আরো কয়েকজন একত্রিত হয়ে উত্তলিত চাঁদা বন্টন সংক্রান্ত বৈঠক করছে। এ সময় যৌথ বাহনীর উপস্থিতি টের পেয়ে অন্যান্য সক্রিয় সদস্যরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও কুনেন্টু চাকমাকে আটক করা হয়। কুনেন্টু চাকমা নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট শাক্তিমান চাকমা হত্যা মামলার অন্যতম আসামী। পার্বত্য চট্টগ্রামের আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলো পার্বত্য অঞ্চলে খুন, গুম, হত্যা, চাঁদাবাজির মাধ্যমে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করে থাকে।

পুলিশ আরো জানায়, কুনেন্টু চাকমা রাঙ্গামাটি সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ও ব্যবসায়ীদের হুমকী প্রদান করে থাকে। এছাড়া পার্বত্য এলাকার বিচ্ছিন্ন ঘটনাগুলোর সংবাদ ইউপিডিএফ (প্রসিত) গ্রুপের পক্ষে প্রকাশের জন্য সাংবাদিকদের হুমকী প্রদান করে।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment