মোনঘর আবাসিক উচ্চ বিদ্যালয়ে নবীণ বরণ অনুষ্ঠিত

রাঙ্গামাটি রিপোর্ট –


রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেছেন, শিক্ষার্থীদের শিক্ষার পাশাপাশি সাংস্কৃতিক, ক্রীড়া ইত্যাদি বিষয়ের চর্চা করতে হবে। নিয়মিত পড়াশোনা, সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড ও ক্রীড়া চর্চা চালিয়ে গেলে সফলতা শিক্ষার্থীদের জীবনে অবশ্যই আসবে। এগুলোর চর্চা যত বেশি হবে ততই তারা উপকৃত হবে। তিনি বলেন, মন-মানসিকতায় তোমাদের আলোকিত মানুষ হতে হবে। যাতে করে তোমাদের আলোয় পরিবার, সমাজ, রাষ্ট্র এবং বিশ্ব যেন আলোকিত হয়।

বৃহস্পতিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাঙ্গামাটির মোনঘর আবাসিক উচ্চ বিদ্যালয়ে নবীণ বরণ, পুরস্কার বিতরণী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই উদ্বোধক হিসেবে মোমবাতি প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন মনোঘর উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ভেনা: শ্রদ্ধালংকার মহাথেরো।

মোনঘর আবাসিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ঝিমিত ঝিমিত চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাঙ্গামাটি জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার উত্তম খীসা, প্যারিসের কমগেষ্ট কোম্পানীর এনালিষ্ট এন্ড পোর্টফলিও ম্যানেজার ইমিল ওয়ালটার, প্যারিসের লুসিয়ল ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা এ্যান পাথুসিয়া। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন মনোঘর এর জেনারেল ম্যানেজার কীর্তি নিশান চাকমা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিষদ চেয়ারম্যান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, জন্মলগ্ন থেকে এই প্রতিষ্ঠানটি গরীব শিশুদের কল্যাণে কাজ যাচ্ছে – এটি খুবই মহৎ মানবতার ও প্রসংশনীয় বিষয়। আজ এই প্রতিষ্ঠানের অনেক শিক্ষার্থী আলোকিত মানুষ হয়ে দেশের বিভিন্ন সেক্টরে কাজ করছে। এটি এই প্রতিষ্ঠান ও এই জেলার জন্য গর্বের বিষয়। তাদের ন্যায় তোমাদেরকেও প্রতিষ্ঠিত হতে হবে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার শিক্ষা বান্ধব সরকার। শিক্ষার উন্নয়নে বিনামূল্যে বই বিতরণ, শিক্ষা বৃত্তি, অবকাঠামো’সহ বিভিন্ন উন্নয়ন করে যাচ্ছে। পার্বত্য এলাকার নৃ-গোষ্ঠী শিশুদের কথা মাথায় রেখে সরকার ২০১৭ সাল থেকে চাকমা, মারমা ও ত্রিপুরা ভাষায় পাঠ্য বই বিতরণ করছে এবং পার্বত্য জেলা পরিষদ কর্তৃক নৃ-গোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের সঠিকভাবে পাঠদানের লক্ষ্যে শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। উন্নত রাষ্ট্র গঠনের সরকারের যে স্বপ্ন তা বাস্তবায়নে সকলকে পাশে থাকার আহ্বান জানান চেয়ারম্যান।

বিদ্যালয়ের সংস্কৃতি, ক্রীড়া ও অবকাঠামোগত উন্নয়নে পরিষদ হতে সর্বাত্মক সহযোগিতা দেয়ার আশ্বাস দেন চেয়ারম্যান ।

পরে ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক ও বিভিন্ন ইভেন্টে বিদ্যালয়ের বিজয়ী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন অতিথিরা। এরপর নতুন শিক্ষার্থীদের হাতে ফুল ও মোমবাতি প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে বরণ করে শপথ গ্রহণ করানো হয়। পরিশেষে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় পরিবেশিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment