সুবলং এলাকায় জেএসএস দুই গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলি, লাশ উদ্ধার

বরকল –

রাঙ্গামাটির বরকল উপজেলার সুবলং ইউনিয়নের কাজলং দোর এলাকায় জেএসএস (এমএন লারমা) ও সন্তু লারমার জেএসএস এর মূল দলের মধ্যে বৃহষ্পতিবার (২৭ জুন) সকালে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। ৫০ রাউন্ডের অধিক গুলি বিনিময় হয়েছে বলে স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে।
এতে জেএসএস এমএন লারমার সংস্কারপন্থীর একজন কর্মী গুলিবিদ্ধ হয়ে পানিতে পরে নিখোঁজ হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। নিখোঁজ ব্যক্তির নাম কোকো চাকমা (২৬)। পরে অনেক খোঁজা-খুঁজির পর বিকেলে তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তার বাড়ি খাগড়াছড়ির দীঘিনালা বলে জানা গেছে। নিহতের শরীরে ৬-৭টি গুলি লাগার চিহ্ন পাওয়া গেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে রাঙ্গামাটি থেকে একটি কংকর বোঝাই ট্রলার বোট এবং একটি ইট বোঝাই ট্রলার বোট লংগদুর উদ্দেশ্যে সুবলং বাজার অতিক্রম করে যাচ্ছিল। এ সময় চাঁদার জন্য সুবলং বাজারের মাজারের ঘাটে ভিড়ানোর জন্য চেষ্টা করে জেএসএস এমএন লারমার সংস্কারপন্থী কর্মীরা। কিন্তু মাল বোঝাই ট্রলারের মালিকরা ঘাটে না ভিড়ে ট্রলার নিয়ে চলে যায়। এসময় জেএসএস সংস্কারপন্থীরা তাদের হাতে থাকা স্পীড বোট নিয়ে ওই মাল বোঝাই দুটি ট্রলার বোটকে ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে ওই দুটি ট্রলার বোটকে লক্ষ্য করে গুলি করে সংস্কার পন্থীরা। পরে আম বাগান নামক এলাকায় ওৎপেতে থাকা জেএসএস এর মূল দলের সাথে গোলাগুলি হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। এতে এমএন লারমার সংস্কারপন্থীদের স্পীড বোটের ড্রাইভার কোকো চাকমা (২৬) গুলিবিদ্ধ হয়ে পানিতে পড়ে যায় বলে বরকল মডেল থানার ওসি মফজল আহম্মদ খান জানিয়েছেন। অনেক খোঁজাখুঁজির পর বিকেলে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment