বান্দরবানে আবারো আওয়ামী লী‌গ নেতাকে হত্যা

‌বান্দরবান রিপোর্ট –

বান্দরবানে এক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। নিহত নেতার নাম মং মং থোয়াই মারমা‌ (৫০)। তিনি রোয়াংছ‌ড়ির তারাছা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন।

সোমবার (২২ জুলাই) দুপু‌র দেড়টার দিকে বান্দরবা‌ন-রোয়াংছ‌ড়ি সড়‌কের শামুকছঝিড়ি এলাকায় মোটর সাইকেল করে আসার সময় দুর্বৃত্তরা তাকে গুলি করে। স্থানীয়রা জানায়, দুপু‌রে রোয়াংছ‌ড়ি থে‌কে বান্দরবান সদ‌রে আসার প‌থে শামুকঝিড়ি এলাকায় সন্ত্রাসীরা মংমং থোয়াইকে লক্ষ্য করে পরপর কয়েক রাউন্ড ফায়ার ক‌রে। এতে ঘটনাস্থ‌লেই তার মৃত্যু হয়।

বান্দরবান সদর হাসপাতা‌লের ডাক্তার চিংম্রাসা ব‌লেন, হাসপাতা‌লে নেওয়ার আগেই তার মৃত্যু হয়েছিল। ফলে তাদের আর কিছু করার ছিল না।

আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ জানিয়েছেন রোয়াংছড়ি থেকে কাজ সেরে মোটর সাইকেল নিয়ে বান্দরবান জেলা শহরে আসার পথে দুর্বৃত্তরা তার উপর বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি করে। গুলি মং মং থোয়াই এর বুকে ও পিঠে লাগে। জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলার চেয়ারম্যান এ কে এম জাহাঙ্গীর জানিয়েছেন কারা গুলি করেছে তা এখনো স্পষ্ট নয়। তবে রোয়াংছড়ি আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ জন সংহতি সমিতিকে দায়ী করছেন।

বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শ‌হিদুল ইসলাম জানান, তারা খবর পেয়েছেন। এখন ঘটনাস্থলের দিকে যাচ্ছেন। সেখানে গিয়ে বিস্তারিত বলতে পারবেন। তবে সন্ত্রাসীদের ধরতে ইতিমধ্যে সেখানে সেনাবাহিনী ও পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে বলে তিনি জানান।

এর আগে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মং প্রু, বান্দরবান পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক চথোয়াই মংসহ বেশ কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। এসব ঘটনার জন্য আওয়ামী লীগ জন সংহতি সমিতিকে দায়ী করে মামলা করেছে। মামলায় জন সংহতি সমিতির কয়েকজন সিনিয়র নেতা কারাগারে আটক আছে।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment