খাগড়াছড়িতে সেনাবাহিনীর সঙ্গে গোলাগুলিতে তিনজন নিহত

খাগড়াছড়ি রিপোর্ট –

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় সেনাবাহিনীর সঙ্গে গোলাগুলিতে তিন সন্ত্রাসী নিহত হয়েছেন। সোমবার ভোররাতে দীঘিনালা উপজেলার দজরপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

নিহতরা পার্বত্য শান্তিচুক্তি বিরোধী ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (প্রসীতপন্থী) সদস্য বলে জানা গেছে। সোমবার দুপুরে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করে।

নিহতরা হচ্ছে, দীঘিনালা ইন্দ্রমণি পাড়ার বাসিন্দা তুঙ্গরাম চাকমার ছেলে ভুজেন্দ্র চাকমা (৪৫), একই উপজেলার হাসিনসনপুর সুধীর প্রিয় চাকমা ছেলে রুচিল চাকমা (২৫) ও পানছড়ি পুজগাং যুবনাক্স পাড়ার বাসিন্দা ধন্যসেন চাকমার ছেলে নবীন জ্যোতি চাকমা (৩২)। নিহতদের লাশ উদ্ধার করেছে দীঘিনালা থানা পুলিশ।

জানা যায়, সোমবার (২৬ আগষ্ট) ভোর রাতে দজরপাড়া এলাকায় টহলরত নিরাপত্তা বাহিনীর উপর অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা গুলি চালায়। এ সময় আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায় নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরাও। পরে ঘটনাস্থলে এই তিন ব্যক্তির মৃতদেহ পাওয়া যায়।

খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার বরাদাম এলাকায় সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের সাথে গোলাগুলিতে নিহত ৩ ইউপিডিএফ কর্মীর মরদেহ উদ্ধারের পর তল্লাশি চালিয়ে ঘটনাস্থল থেকে ২টি পিস্তল (৮ রাউন্ড গুলিসহ), ১টি আমেরিকান এম-৪ অটোমেটিক কার্বাইন (৪ রাউন্ড গুলি ও ২ রাউন্ড খালি খোসাসহ) উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা তিন জনেই প্রসীতপন্থী ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত বলে জানা গেছে। দীঘিনালা থানার ওসি উত্তম চন্দ্র দেব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। ইউপিডিএফের খাগড়াছড়ি জেলা সংগঠক অংগ্য মারমা বলেন, নিহত তিনজনই ইউপিডিএফের কর্মী।

ইউনাইটেড পিপল্স ডেমোক্রেটিক (প্রসীত)-এর খাগড়াছড়ি জেলা সংগঠক অংগ্য মারমা সোমবার (২৬ আগস্ট) সংবাদ মাধ্যমে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার কৃপাপুর গ্রাম থেকে নিরাপত্তা বাহিনী কর্তৃক তিন ইউপিডিএফ সদস্যকে গ্রেফতারের পর ঠান্ডা মাথায় গুলি করে হত্যার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

দীঘিনালা থানা অফিসার ইনচার্জ উত্তম চন্দ্র দেব ঘটনা সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহতদের লাশ উদ্ধার করে থানা নিয়ে আসা হয়েছে। ময়নাতদন্তে জন্য মর্গে হয়েছে। মামলা প্রক্রিয়া চলছে।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment