রাঙ্গামাটিতে সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহত পরিবারের হাতে অর্থ সহায়তা

প্রেস রিপোর্ট –

রাঙ্গামাটিতে রবিবার (১৭ নভেম্বর) সকালে ঘাগড়া এলাকায় ট্রাক-বেবিটেক্সির মুখোমুখি সংঘর্ষে ভেতরে থাকা বেবিটেক্সি যাত্রী রাঙ্গামাটি সরকারি কলেজের বিএসএস (অনার্স) এর শিক্ষার্থী এশিনচিং মারমা (২০) নিহত ও চার যাত্রী গুরুতর আহত হওয়ায় ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলের পাশে থাকা স্থানীয়রা হতাহতদের উদ্ধার করে রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা ও পরিষদ সদস্য অংসুই প্রু চৌধুরী হাসপাতালে নিহত ও আহতদের খোঁজ খবর নিতে ছুটে যান। আহতদের পর্যাপ্ত চিকিৎসা প্রদানের জন্য হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকদের চেয়ারম্যান নির্দেশ দেন এবং তাদের সু-চিকিৎসা ও ওষুধপত্র ক্রয়ের জন্য পরিষদ হতে আহত প্রত্যেক পরিবারের হাতে নগদ ১০ হাজার টাকা করে প্রদান করেন। আহতদের মধ্যে শীলমনি চাকমা’র অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয় এবং অপর তিনজন রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

অন্যদিকে পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা তার অফিস কক্ষে নিহত এশিনচিং মারমা’র শেষকৃত্য সম্পন্ন করার জন্য তার পিতার হাতে নগদ ২০ হাজার টাকা প্রদান করেন। এসময় রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য অংসুই প্রু চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

অর্থ সহায়তা প্রদান শেষে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেন, চালকদের উদাসীনতা, অসচেতনতা, ফিটনেসবিহীন ও বেপরোয়া গাড়ী চালানোর কারণে দেশের কোন না কোন জায়গায় নিত্যদিনই এধরনের ঘটনা ঘটে চলেছে। ফলে অকালে প্রাণ হারাতে হচ্ছে স্বজনদের। তিনি বলেন, এ ধরনের দুর্ঘটনা কারোর জন্য কাম্য নয়।

পরিষদ চেয়ারম্যান নিহতের অকাল মৃত্যুতে শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

দুর্ঘটনায় আহতরা হলেন নানিয়ারচরের ঘিলাছড়ি ইউনিয়নের তাকাছড়ি গ্রামের শুক্র চাকমার ছেলে শিলমনি চাকমা (২৫), কাউখালী রাঙ্গীপাড়ার মৃত সোলাইমান এর ছেলে মো: দুলাল, কাউখালী সুগারমিল আদর্শ গ্রামের আব্দুল গফুরের স্ত্রী আক্তার বেগম ও কাউখালী একই গ্রামের মো: তারেক -এর স্ত্রী লাকী আক্তার।

অরুনেন্দু ত্রিপুরা
জন সংযোগ কর্মকর্তা
রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ
ছবি এবং সংবাদ : লিটন শীল।

খবরটি শেয়ার করুন

Post Comment